সংবর্ধনায় সিক্ত যুক্তরাষ্ট্র আ‘লীগ সভাপতি

0
247

নিউইয়র্ক থেকে এনআরবি: দলমত-নির্বিশেষে সর্বস্তরের প্রবাসীর সমাগমে সংবর্দ্ধিত হলেন উত্তরবঙ্গের কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট কৃষিবিজ্ঞানী ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান।
যুক্তরাষ্ট্রস্থ ‘নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশন’ গত ১৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার রাতে নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল ও রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান।
সংগঠনের সভাপতি আতোয়ারুল আলমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবুল কাশেমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি ড. সিদ্দিকুর রহমানের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন সংগঠনের উপদেষ্টা নূরল ইসলাম বর্ষন।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ড. সিদ্দিকুর রহমানের সহধর্মিনী শাহানারা রহমান, রাজনীতিক সোলায়মাল আলী, হোস্ট সংগঠনের নেতা ফাহাদ সোলায়মান প্রমুখ।
নিজ এলাকার প্রবাসীদের সংবর্দ্ধনায় সিক্ত  ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রে রাজনীতিসহ যা কিছু করি তা বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের জন্য।’
প্রবাস জীবন ছেড়ে দেশে ফিরে যাওয়ার পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সুযোগ পেলে ভবিষ্যতে দেশের মানুষের জন্য সরাসরি কাজ করতে চাই।’
সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘প্রবাসীরা ঐক্যবদ্ধ হলে জাতীয় সংসদে প্রবাসীদের প্রতিনিধিত্ব আদায় করে নেয়া কঠিন কোনো কাজ নয়। কারণ প্রবাসীদের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দুর্বলতা রয়েছে’। উল্লেখ্য, কয়েক সপ্তাহ আগে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে ৫টি আসন প্রবাসীদের জন্যে সংরক্ষণের দাবি তুলেছেন সিদ্দিকুর রহমান। বগুড়ার খালেদা জিয়ার আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হবার অভিপ্রায়ে কয়েক মাস যাবত ঢাকায় দেন-দরবার করছেন সিদ্দিকুর।
অপর বক্তারা বলেন, গুণী মানুষকে যারা সম্মাননা দেন বরং তারাই সম্মানিত হন।
ড. সিদ্দিকুর রহমান রাজনৈতিক ব্যক্তি হওয়া সত্ত্বেও দলমত নির্বিশেষে সম্মানিত হয়েছেন। তিনি দেশের জন্য কাজ করছেন। তিনি বাংলাদেশের জন্য গর্বের।
উল্লেখ্য, ড. সিদ্দিকুর রহমান যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বগুড়া জেলার সন্তান সিদ্দিকুর রহমান যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেবার আগে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রে তিনি বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউজার্সির সভাপতি এবং উত্তর আমেরিকায় প্রবাসীদের মহামিলনমেলা হিসেবে পরিচিত ‘ফোবানা’র আহ্বায়ক ছিলেন।
যুক্তরাষ্ট্রে পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিবেশ বিজ্ঞানী হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের রাটগার্স ইউনিভার্সিটি থেকে কৃষি বিজ্ঞানে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।
অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে ছিল সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাবুব।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here