কোটালীপাড়া পৌরসভার নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন পেতে মরিয়া সকলে ঢাকায়

0
34

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া পৌরসভার নির্বাচনের আওয়ামী লীগের  মনোনয়ন প্রত্যাশিরা এখন ঢাকায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। যে যার মতো গ্রুপিং,লবিং করে কাংখিত মনোনয়ন লাভে যার পর নাই প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন  বলে জানা গেছে। ঘোষিত তফশিল মোতাবেক আগামী ১ মার্চ মনোনয়নপত্র জমা দেবার শেষ দিন । ২৯ মার্চ পৌরসভার  নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সকলের ধারনা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নিজ নির্বাচনী এলাকা হওয়ার কারণে এখানে যিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন তিনিই নিশ্চিত মেয়র নির্বাচিত হবেন। অন্য কোন দলের মনোনীত প্রার্থী হলেও তারা জন সমর্থন পাবে না।
নির্বাচনে মেয়র পদে যে কয় জনের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন বর্তমান পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এইচএম অহিদুল ইসলাম, সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ কামাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুল খালেক হাওলাদার, উপজেলা  আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুজিবুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা কমল সেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক নারায়ণ চন্দ্র দাম, উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী রাফেজা বেগম ও অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন সরদার। প্রার্থীরা সকলেই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন।
ইতিমধ্যেই  সাম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যানার, পোস্টার, ফেষ্টুনে ছেয়ে গেছে পৌর এলাকা। প্রতিদিনই প্রার্থীদের সমর্থনে চলছে মিছিল ও সমাবেশ।  তবে কর্মীরা মিছিল ও সমাবেশ করে মাঠ গরম রাখলেও নেতারা রয়েছেন ঢাকায়। কোটালীপাড়া পৌরসভার মনোনয়নের বিষয়টি সম্পূর্ণ নির্ভর করে কেন্দ্রিয় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছার উপর বলে অনেকেই জানিয়েছেন।
কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড:সুভাষ চন্দ্র জয়ধর জানিয়েছেন। কে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন তা শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যার পর জানা যাবে। সিদ্ধান্ত আসবে ঢাকা থেকে সম্পূর্ন নিয়মতান্ত্রীকভাবে।
১৯৯৯ সালে কোটালীপাড়া পৌরসভার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় । তৃতীয়বার নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ঘাঘর ইউনিয়ন পরিষদ পৌরসভায় অর্ন্তভুক্ত করা হয়। কোটালীপাড়া পৌরসভার বর্তমান লোক সংখ্যা প্রায় ২০ হাজার। মোট ভোটার সংখ্যা ১৩ হাজার ৩ শত ১৫ জন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here