সাকিবের দায়িত্ব অন্যদের ভাগ করে নিতে বললেন ওয়ালশ

0
58

ক্রীড়া প্রতিবেদক : নিদাহাস ট্রফিতে টি-টুয়েন্টি সংস্করণের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। অন্তর্র্বতীকালিন প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশের জন্য নিঃসন্দেহে বড় ধাক্কা। তবে এটাকে একমাত্র ভাবনা বানিয়ে থেমে থাকার কোনো মানে নেই। সাকিবকে ছাড়া খেলার পরিকল্পনাও এর মধ্যে সাজিয়ে ফেলেছেন এই ক্যারিবিয়ান। যদিও সে পরিকল্পনা গোপনই রাখতে চান কোচ। কিন্তু কিছু বিপত্তি আছে সেখানেও। কারণ সাকিবের বিকল্প পাওয়া যে এই সময়ে সম্ভব না তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন কিংবদন্তি ওয়ালশ।
ঘরের মাঠে সাকিবকে ছাড়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গত মাসের টি-টুয়েন্টি সিরিজে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ। দু’টি ম্যাচেই তারা হেরেছে বড় ব্যবধানে। সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তাদের মাটিতে কাজটা বেশ কঠিন জানেন ওয়ালশ। ওখানে আরো আছে ভারত। এমন টুর্নামেন্টে টাইগার দলের সেরা তারকাই থাকছেন না। তাই দায়িত্বটা সবাইকে ভাগাভাগি করে নেওয়ার আহ্বান জানান কোচ, ‘ (সাকিবের অনুপস্থিতিতে) সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সাকিবের এখনও চিকিৎসা চলছে। ওকে পাব না ধরে নিয়ে পরিকল্পনা করতে হবে আমাদের। পরিকল্পনার খুব বেশি কিছু আমি প্রকাশ করতে চাই না। তবে ওকে ছাড়া আমাদের একটু ভিন্নভাবে ভাবতে এবং এগিয়ে যেতে হবে।’
প্রথমবারের মতো প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করছেন ওয়ালশ। বাংলাদেশের শুধু নয়, তার ক্যারিয়ারেও এটা প্রথমবারের মতো কোনো দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব। আর শুরুতেই বড় পরীক্ষার সামনে। বিশেষ করে সাকিবের বিকল্প খোঁজাটা খুব কঠিন হয়ে পড়েছে তার জন্য। নিজেও স্বীকার করলেন সে কথা, ‘ওর (সাকিব) মত একজনের অভাব রাতারাতি পূরণ করা কঠিন। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং ও অধিনায়কত্ব-সাকিব সব কিছুই করে। ও না থাকায় সবাইকে বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে।
নিদাহাস ট্রফির শুরুতে না পেলেও মাঝপথে পেতে পারেন এমন আশাতেই দলে রাখা হয়েছিল সাকিবকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই আশা ছাড়তে হয় টাইগারদের। শনিবারই বোর্ড জানিয়ে দেয়, সাকিব শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছেন না। আর এমন খেলোয়াড়কে নিয়ে ঝুঁকি না নেওয়ার পক্ষেই ওয়ালশ। তাকে সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় দেওয়ার কথাই বললেন তিনি, আমার চোখে ওকে (সাকিব) আর পাচ্ছি না। সে এমন একজন যাকে ফিট হতে পর্যাপ্ত সময় দিতে হবে। আমরা তাকে সে সময় দিচ্ছি যতটা তার সুস্থ হতে সময় লাগে। সবাই এটা বোঝে এবং সে অনুযায়ী কাজ করে। যখন সাকিবের মতো বিশ্বমানের খেলোয়াড় দলে থাকবে তখন তাকে সম্পূর্ণ ফিট হওয়ার সময় দিতে হবে। বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাংকক থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ফেরার পর জানা যায় সম্পূর্ণ সুস্থ হতে প্রায় ২০ দিন লাগবে সাকিবের। তাই তাকে নিয়ে আর ঝুঁকি নেয়নি ক্রিকেট বোর্ড। ওয়ালশ কথা বলার ঘণ্টাখানেক পরই সাকিবের বিকল্প হিসেবে নিদাহাস ট্রফির দলে নেওয়া হয়েছে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাসকে

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here