৬-১ গোলে লন্ডভন্ড পানামা

0
136

হ্যারি কেন-এর বিদ্যুৎ চমক
নিউজ ডেস্ক : টানা দুই জয়ে শেষ ষোলোয় উঠে গেল ইংল্যান্ড। প্রথম ম্যাচে জোড়া গোল করা হ্যারি কেন এবার করলেন হ্যাটট্রিক। জোড়া গোল করলেন জন স্টোনস। ৬-১ গোলে উড়ে গেল বিশ্বকাপের নবাগত দল পানামা। তিউনিসিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে যে ঘাম ঝরানো জয় পেয়েছিল ইল্যান্ড, তাতে সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল ছিলেন হ্যারি কেন। জোড়া গোল করে দলকে সাফল্য এনে দিয়েছিলেন তিনি। রাশিয়া বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সে তিনিই ঝড় তুলে রীতিমতো লন্ডভন্ড করে দিয়েছেন পানামার গোলপোস্ট।
পর্তুগাল অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর আসরে দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক করেন হ্যারি কেন। শুধু তাই নয়, রিয়াল মাদ্রিদ তারকাকে ছাড়িয়েও গেছেনে তিনি। আসরে এটি তাঁর পঞ্চম গোল। আর রোনালদোর ঝুলিতে রয়েছে চার গোল। এর আগে প্রথম ম্যাচে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে জোড়া গোল করেছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক।
গতকাল  নিজনি নাভগোরোদে অনুষ্ঠিত ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড (১-০)। জন স্টোনস সূচনা এনে দেন তাদের। কর্নার থেকে পাওয়া বলে চমৎকার হেডে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি।
ইংলিশদের ব্যবধান দ্বিগুণ করা গোলটি আসে ম্যাচে ২২ মিনিটে, পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন হ্যারি কেন।
ম্যাচে ইংল্যান্ডের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন তরুণ ফরোয়ার্ড জেসে লিংগার্ড। আর চতুর্থ গোলটি করেন প্রথম গোলের নায়ক জন স্টোনস।  প্রথমার্ধের শেষ দিকে আরেকটি গোলের দেখা পায় ইংল্যান্ড। পেনাল্টি থেকে হ্যারি কেন ব্যক্তিগত দ্বিতীয় এবং দলের পক্ষে পঞ্চম গোলটি করেন।
দ্বিতীয়ার্ধে ৬২ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে চমৎকার শটে বল জালে জড়ান এই ইংলিশ তরকা। এই গোলটি করে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন তিনি।
৭৮ মিনিটে পানামার হয়ে একটি গোল করেন ডিফেন্ডার ফিলিপে ব্যালয়। ফ্রি-কিক থেকে পাওয়া বলে চমৎকার প্লেসিং শটে গোলটি করে ব্যবধান একটু কমিয়েছেন ঠিক, কিন্তু হার এড়াতে পারেননি।
এই বিশ্বকাপে দুই ম্যাচে ৫ গোল নিয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতাও এখন কেন। ১৯৬৬ সালে রজার হান্ট ও ১৯৮৬ সালে লিনেকারের পর প্রথম ইংল্যান্ড খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে তিন বা এর বেশি গোল করলেন টটেনহামের এই ফরোয়ার্ড।
এই ম্যাচ জিতে ইংল্যান্ড নকআউট পর্বে খেলা নিশ্চিত করেছে। আসরে এটি তাদের টানা দ্বিতীয় জয়। এর আগে প্রথম ম্যাচে তিউনিসয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল তারা। পানামা এর আগে প্রথম ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরেছিল, ৩-০ গোলে। টানা দুই হারে আসরের গ্রুপ পর্ব থেকে তাদের বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। গ্রুপের শেষ ম্যাচে তারা লড়বে তিউনেশিয়ার সঙ্গে।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here