বেপরোয়া গাড়ী চালানোর দুর্ঘটনায় হত্যার বিচার একমাত্র মৃত্যুদন্ড : এরশাদ

0
241

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, বেপরোয়া গাড়ি চলানোয় দুর্ঘটনায় হত্যার বিচার একমাত্র মৃত্যুদন্ড। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকাকালে মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে আমরা আইন করেছিলাম। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় রাজধানীর মহাখালী দক্ষিনপাড়ায় বাসচাপায় নিহত দিয়া খানম মীমের স্বজনদের সান্তনা দিতে গিয়ে গণমাধ্যমের সাথে এমন মন্তব্য করেন তিনি।
এসময় ছাত্রদের রাজপথে আন্দোলন প্রসঙ্গে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, ছাত্রদের এই দাবী রাজনৈতিক নয়, তাদের এ চাওয়া বাঁচার দাবী। তিনি, ছাত্রদের চলমান আন্দোলনে তাঁর পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করেন। শিশুদের ওপর পুলিশি নির্যাতনের সমালোচনা করে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, নিন্দনীয় এ হামলা মেনে নেয়া যায়না।
গণপরিবহণে নৈরাজ্য প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, এখন ১০/১২ বছরের শিশুরাও গাড়ি চালায়। লাইসেন্স, গাড়ির ফিটনেস যেনো দরকারই নেই। এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে, তিনি আরো বলেন, দায়িত্বশীল এক মন্ত্রী যেভাবে হেসে হেসে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তা লজ্জাজনক। শিশুদের এই আন্দোলনে পুলিশ ও শ্রমিক সংগঠনগুলো যেনো সহিংস আচরণ না করে সে জন্যও সবাইকে সহনশীল থাকার আহŸান জানান। এবং ছাত্রদের যৌক্তিক আন্দোলন মেনে নিতে সরকারের প্রতিও আহŸান জানান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
এসময় সাবেক রাষ্ট্রপতির সাথে উপস্থিত ছিলেন, পার্টির মহাসচিব এবিএম রুল আমিন হাওলাদার এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, এস.এম. ফয়সল চিশতী, ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নুরু, সাংগঠনিক সম্পাদক- মোঃ জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া, ফখরুল আহসান শাহজাদা, আব্দুল হামিদ ভাসানী, মো: হেলাল উদ্দিন, কেন্দ্রীয় নেতা- এমএ রাজ্জাক খান, গোলাম মোস্তফা, কাজী আবুল খায়ের, মিজানুর রহমান দুলাল, আব্দুর রাজ্জাক, জহিরুল ইসলাম জহির, ফয়সলা দীপু ও জিয়াউর রহমান বিপুল প্রমুখ।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here