অনিয়ম হবে না, এরকম নিশ্চয়তা দেওয়ার সুযোগ নেই : সিইসি

0
99

“জাতীয় নির্বাচনে কোনো অনিয়ম হবে না, এরকম নিশ্চয়তা দেওয়ার সুযোগ আমার নেই বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা । তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনে প্রতিবন্ধীদের ভোটার অধিকার নিয়ে আয়োজিত এক কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। নির্বাচন কমিশনের প্রতি জাতির আস্থা নেই গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, কোন জাতি তাকে কি বলেছে আমি জানি না। একটা কথা বললে তো তার একটা পরিসংখ্যান দরকার। জাতি কি তাকে বলেছে নির্বাচন কমিশনের ওপর আমাদের আস্থা নেই? এ সম্পর্কে আমি তো কিছু জানি না।
পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এখন জাতীয় নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ আছে কি না এমন প্রশ্নে নুরুল হুদা বলেন, ‘এ ধরনের নির্বাচনে অনিয়ম হয়েই থাকে। বড় বড় পাবলিক নির্বাচনে কিছু কিছু অনিয়ম হয়ে থাকে। আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়ে থাকি। বরিশালে বেশি অনিয়ম হয়েছে, সেখানে আমরা বাড়তি ব্যবস্থা নিয়েছি। নির্বাচনে অনিয়ম হলে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করা দরকার, সেভাবে আমরা নিয়ন্ত্রণ করব।’ নির্বাচনী পরিবেশের সুব্যবস্থা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশন বলেন, ‘অসুবিধা কোথায়? আমি তো কোনো অসুবিধা দেখি না। সংবিধানের বিধান অনুসারে নির্বাচন হবে।’ নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ওপর জাতির আস্থা নেইÑড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, ‘ড. কামাল হোসেন কীভাবে দেখেন, তা আমি জানি না। কোন জাতির কি পরিসংখ্যান, তাঁর কাছে আছে, আমার জানা নেই। একটা কথা বলতে হলে জাতির পরিসংখ্যান নিতে হবে। জাতি কি তাঁকে বলেছে নাকি যে আমরা জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওপর আস্থা রাখতে পারছি না?’ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘জাতীয় সংসদের প্রস্তুতি আমাদের আগে থেকেই ছিল। অক্টোবরে তফসিল ঘোষণা করা হবে। ডিসেম্বরের শেষের দিকে অথবা জানুয়ারির প্রথম দিকে সংসদ নির্বাচন হবে। নিয়ম অনুযায়ী জানুয়ারির ২৮ তারিখের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। দেশে জাতীয় নির্বাচনের পরিবেশ আছে। এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। কমিশন বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলে নির্বাচনের পরিবেশে কোনো ব্যাঘাত ঘটবে কি না, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এখন যে পরিস্থিতি রয়েছে, এর সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই। এটি ভিন্ন ইস্যু। আন্দোলনকারীরা নির্বাচন নিয়ে কোনো কথা বলেনি।’ এর আগে সিইসি প্রতিবন্ধী ভোটাররা নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার সময় কী ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে, সে বিষয়ে এক কর্মশালার উদ্বোধন করেন। এ আয়োজনে যৌথভাবে অংশ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেক্টোরাল সিস্টেমস (আইএফইএস)। প্রতিবন্ধীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে গেলে কী কী সমস্যার সম্মুখীন হন। যারা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, তাদের জন্য আলাদা ব্যালট পেপার ছাপানো যায় কি না, যাতে করে তারা হাত দিয়ে প্রতীক বুঝতে পারেনÑএসব  বিষয়ে ২০ থেকে ২৫ জন প্রতিবন্ধীকে নিয়ে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। কর্মশালায় নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here