এবার ট্রাম্পের পুত্রবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ

0
155

হোয়াইট হাউজের প্রাক্তন কর্মী ওমারোসা ম্যানিগাল্ট নিউম্যান এবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পুত্রবধূ লারা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অনৈতিক অর্থ প্রদানের প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ করেছেন। বৃহস্পতিবার তিনি এ সংক্রান্ত একটি নতুন অডিও রেকর্ড প্রকাশ করেছেন। ওমারোসা দাবি করেছেন, হোয়াইট হাউজ থেকে বরখাস্তের পর তাকে টেলিফোনে ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা শিবিরে যোগ দেওয়ার বিনিময়ে মাসে ১৫ হাজার ডলার দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলেন। বিনিময়ে তাকে চাকরিচ্যুতির ব্যাপারে চুপ থাকতে বলেছিলেন লরা। ওমারোসা জানান, হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ জন কেলি যেদিন তাকে বরখাস্ত করেন তার পরের দিনই লরা ট্রাম্প তাকে ফোন দেন। এর আগের দিন নিউ ইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া স সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের সঙ্গে কাজ করা বেশ জটিল বলে ম্যানিগ্যাল্ট যে মন্তব্য করেছিলেন আলাপচারিতার প্রথমে সে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন লরা। জবাবে ওমারোসা বলেন, হোয়াইট হাউজে তিনি ছিলেন একমাত্র আফ্রিকান-আমেরিকান নারী। তিনি এমন কিছু দেখেছেন যা তাকে অস্বস্তিতে ফেলেছে এবং ‘আমি যে নিগুঢ় গল্প জানি তা বিশ্ব শুনতে চায়।’ জবাবে লরা ট্রাম্প বলেন, ‘মনে হচ্ছে সুনিশ্চিতভাবে তুমি এমন কিছু পেয়েছ যা প্রকাশ করতে চাচ্ছ।’ এরপরই ম্যানিগাল্টকে ট্রাম্পের ২০২০ সালের নির্বাচনী শিবিরে চাকরির জন্য প্রস্তাব দেন লরা। এসময় তাকে মাসে ১৫ হাজার ডলার করে দেওয়ার প্রস্তাব দেন। সাক্ষাৎকারে ওমারোসা ম্যানিগাল্টের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল তিনি একে অনৈতিক অর্থ প্রদানের চেষ্টা হিসেবে দেখছেন কিনা। জবাবে ওমারোসা বলেন, ‘অবশ্যই’।লরা যে বিনিময়ে মুখ বন্ধ রাখতে বলেছে তা উল্লেখ করে ওমারোসা বলেন, ‘তিনি এটা একেবারেই স্পষ্ট করেছেন যে, আমি যদি নির্বাচনী শিবিরে যোগ দেই তাহলে আমাকে চুপ থাকতে হবে। আমি একে আমার নিরবতা কেনার চেষ্টা হিসেবে দেখছি।’গত বছর ডিসেম্বরে অযোগ্যতা ও দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার অভিযোগে ওমারোসাকে হোয়াইট হাউসের গণসম্পর্ক কর্মকর্তার চাকরি থেকে পদচ্যুত করা হয়। চাকরি খোয়ানোর পর হোয়াইট হাউসে অভিজ্ঞতার বর্ণনা করে ওমারোসা একটি খোলামেলা বই লিখেছেন। বইটি এই সপ্তাহেই বাজারে আসছে।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here