সেই বদিউজ্জামান পেলেন ৫০ লাখ টাকা!

0
40

নিজস্ব প্রতিবেদক : দিনটি ছিল ২০০০ সালের ২০ জুলাই। এই দিন গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজ মাঠে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার জনসভা করার কথা ছিল। কিন্তু সেই দিনের সভাস্থলে হুজি নেতা মুফতি হান্নান ৭৬ কেজি ওজনের বোমা পুতে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। তার সেই চেষ্টা সফল হয়নি। জনসভার আগের দিন সকালে সভাস্থলের পাশের চায়ের দোকানদার বদিউজ্জামান সরদার পুকুরে চায়ের কেতলি ধুতে গিয়ে একটি তার দেখতে পায়। আশপাশের লোকজনকে ডেকে বদিউজ্জামান সেই তারটি দেখায়। খবর পেয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ছুটে আসে। শুরু হয় তল্লাশি। সন্ধান মেলে ৭৬ কেজি ওজনের বোমা। এর পর কেটে গেছে প্রায় ১৯টি বছর। সম্প্রতি বদিউজ্জামান সরদার উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সোহরাব হোসেন হাওলাদারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন।সোহরাব হোসেন হাওলাদার বলেন, গত ২৭ জানুয়ারি বদিউজ্জামান সরদারকে নিয়ে আমি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করি। সে উদার মনে বদিউজ্জামানের সঙ্গে কথা বলেন। এর পর গত রবিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দপ্তরে বসে বদিউজ্জামানের হাতে ৫০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন। বদিউজ্জামান সরদার বলেন, দীর্ঘ ১৯ বছর আমি প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু কোন নেতাই আমাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করার সুযোগ করে দেয়নি। সর্বশেষ সোহরাব হোসেন হাজরা আমাকে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করার সুযোগ করে দেয়। প্রধানমন্ত্রী মনখুলে আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি আমাকে ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন। তার এই মহানুভবতায় আমি অত্যন্ত খুশি। দোয়া করি আল্লাহ যেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালো রাখেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here