যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, জাপান, ভারত ইইউ বঙ্গোপসাগরে অনুসন্ধানে আগ্রহী

0
79

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গোপসাগরে এবং এর তলদেশে প্রাকৃতিক সম্পদ অনুসন্ধানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সমুদ্রের তলদেশের সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরনে তারা বাংলাদেশকে কারিগরি ও আর্থিক সহযোগিতা দিতে চেয়েছে। অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে এ কাজ করতেও আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
জানা যায়, বিশাল সমুদ্রের জলরাশিতে মৎস্য ও সামুদ্রিক প্রাণীজ  সম্পদ এবং তলদেশে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরনে বেশ কয়েকটি দেশই আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এদের মধ্যে রয়েছে চীন, ফ্রান্স, জাপান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও ভারত। সংশ্লিষ্টরা মনে করেন বিশাল মৎস্য ও প্রাণীজ সম্পদ ছাড়াও তলদেশে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ থাকা সম্পর্কে দেশগুলোর কাছে নির্ভরযোগ্য  তথ্য  রয়েছে। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তথ্য পেয়েই তারা আগ্রহী হয়েছে। বঙ্গোপসাগরের তলদেশে অনুসন্ধান কাজ চালানো অত্যন্ত ব্যয়বহুল বলেই বাংলাদেশ নিজস্বভাবে অনুসন্ধান ও আহরন কাজে হাত দিতে পারছেনা। ব্লু ইকোনমির এর মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও বিপুল সংখ্যক জনশক্তির কর্মসংস্থানের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ফ্রান্স, জাপান, ভারত, চীন ও সর্বশেষ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মৎস্য সম্পদ আহরনে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। জাপান, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত কয়েকটি দেশের বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান প্রস্তাবও দিয়েছে। কয়েকটি আমেরিকান সংস্থাও এতে আগ্রহী। মৎস্য ও প্রাণীজ সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরনেও তাদের আগ্রহ। একাধিক আমেরিকান প্রতিষ্ঠান তলদেশে খনিজ সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরনে অধিকতর উৎসাহী। জানা যায়, ১ লাখ ১৬ হাজার বর্গকিলোমিটার আয়তনের বিশাল জলসীমা কয়েকটি ভাগে বিভক্ত করে বিদেশিদের অনুসন্ধান ও আহরনের দায়িত্ব দেয়ার কথা ভাবা হচ্ছে।
জানা যায়, বাংলাদেশ ও আমেরিকার মধ্যে সম্পাদিত বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ফোরাম (টিকফা) মৎস্য, প্রাণীজ ও খনিজ সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরনে তাদের  আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেন। পরবর্তীতে ইউনাইটেড স্টেটস ট্রেড রিপ্রেজেনটেটিভ ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দিয়েছে। দূতাবাস থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয়ে তা পাঠানো হয়েছে। নির্বাচনের আগে তাড়াহুড়ো করে সরকার সিদ্ধান্ত নেয়নি। পরবর্তীতে জাতীয় স্বার্থ সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারে রেখে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা যায়।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here