ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট

0
13

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ব্রিজ নির্মাণে ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কে প্রতিদিনই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। ফলে যানবাহন নষ্ট হয়ে সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। ঈদে ঘরমুখো মানুষের বাড়তি চাপে এ যানজট আরও তীব্রতর হয়েছে। দেশের উত্তরের জেলাগুলোর সঙ্গে খুলনা ও যশোর অঞ্চলের জেলাগুলোর এবং বেনাপোল বন্দরের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কে ব্রিজের দু’পাশে প্রতিদিনই দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে শত শত যাত্রীবাহী বাসসহ বিভিন্ন যানবাহনকে। গতকাল বৃহস্পতিবার এ ব্রিজের সামনে একটি ট্রাকের চাকা ভেঙে পড়ে যায়। ফলে তিন ঘণ্টা এই মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। এছাড়া গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যে দিনভর দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান রাস্তার পাশে যে বাইলেন বা ডাইভারশন রাস্তা তৈরি করেছে সেটিতে বৃষ্টির পানি আর কাদায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। অভিযোগ রয়েছে, ব্রিজ নির্মাণকাজ শুরু করার আগে বিকল্প রাস্তার কথা থাকলে সেটা ঠিকভাবে করেনি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। স্থানীয় বাসিন্দা জালাল হোসেন জানান, ব্রিজটি নির্মাণ কাজ শুরুর পর থেকেই প্রতিদিনই এখানে দুর্ঘটনা ঘটেছে। রাস্তার পাশে যে বিকল্প রাস্তা (মাটি দিয়ে) করা হয়েছে তার ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। যার কারণে ব্রিজের এক পাশ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। এর কারণে প্রতিনিয়ত এখানে বাস,ট্রাক কিংবা মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় পড়ছে। এদিকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে, ব্রিজ নির্মাণ শেষ হয়েছে গেছে। এখন কিংরিং সেশন চলছে। আগামী ২৬ আগস্টের পর থেকে এখানে আর সমস্যা থাকবে না। সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, কয়েক মাস আগে যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের এই পুরাতন ঝুকিপূর্ণ ব্রিজ নতুন করে নির্মাণের অনুমোদন পায়। ব্রিজ নির্মাণের কাজ পায় যশোরের মাইনুদ্দিন বাশির নামের এক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। ব্রিজটি নির্মাণ ব্যায় ধরা হয় প্রায় ৩১ লাখ টাকা। ইতোমধ্যে ব্রিজটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান বলছেন কয়েকদিনের মধ্যে ব্রিজের দুই পাশ খুলে দেয়া হবে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের কালীগঞ্জ অফিসের উপ সহকারী প্রকৌশলী আব্দার রহমান জানান, ব্রিজটি মেরামত শেষ হয়েছে। মূলত যে যানবাহন চলাচলের জন্য যে বাইপাস বা ডাইভারশন রাস্তা করা হয়েছে সেখানে বৃষ্টিতে কাদা হয়ে গেছে। এর ফলে সেখানে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। ব্রিজের এক পাশ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে এর কারণে একটু যানজট হচ্ছে। আগামী ২৬ আগস্ট এই ব্রিজটি পুরোপুরি খুলে দেয়া হবে।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here