এরশাদ ঘোষিত জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের

0
22

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টির সদ্য প্রয়াত নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী রওশন এরশাদ প্রয়ায়ত  চেয়ারম্যান হুসেইন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ঘোষিত সিন্ধান্তকে প্রত্যাখান করে নিজেকে জাতীয় পার্টির স্বঘোষিত চেয়ারম্যান ঘোষণা করেছেন।  জাতীয় পার্টির যে অংশটি রওশন এরশাদের গুলশানের বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে নেতৃত্ব নিয়ে এসব ঘোষণা দেন, তাদের মধ্যে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, মুজিবুল হক চুন্নু উপস্থিত ছিলেন।
এই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পরেই জিএম কাদের একটি সংবাদ সম্মেলনে আসেন। সেখানে তিনি বলেছেন, ”দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এবং দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ যে দায়িত্ব দিয়ে গেছেন, সে হিসাবেই তিনি বৈধভাবে পার্টির চেয়ারম্যান রয়েছেন।’ জাতীয় পার্টি ভেঙ্গে গেল কিনা বা বিভক্ত হলো কিনা, এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ”কেউ ঘোষণা দিলেই পার্টি ভাগ হয়ে যায় না।” এ সময় দলে জিয়াউদ্দিন বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এরশাদের মৃত্যুর পর থেকেই দলটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন জি এম কাদের। সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘এরশাদ মানে জাপা, জাপা মানে এরশাদ। আমি প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে দলে আছি। তিনি (এরশাদ) কিন্তু জিএম কাদেরকে তার অবর্তমানে চেয়ারম্যান হিসেবে মনোনীত করেছেন। আমরা রওশন এরশাদকে সম্মান করি, তিনি যা করেছেন তা নিয়ে আমরা কিছু বলবো না।’
জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, ‘রওশন এরশাদকে সম্মান করি, যতটুকু শুনেছি, তিনি নিজে থেকে নিজের কথা বলেননি।’ তিনি আরও বলেন, ‘শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এটা নিয়ে অস্থির হওয়ার কিছু নেই। জাপা ভাঙেনি। কোনও ভাঙনের মুখে পড়েনি। যেকোনও ব্যক্তি যেকোনও ঘোষণা দিলেই তো তা বাস্তবায়ন হয় না।’গতকাল দুপুরে বনানীর চেয়ারম্যান কার্যালয়ে জিএম কাদের এসব কথা বলেন। তিনি সেখানে এরশাদের বিভিন্ন নির্দেশনা পাঠ করে শোনান। নিজের অবর্তমানে পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে ভাই জিএম কাদের দায়িত্ব পালন করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন এরশাদ।
গঠনতন্ত্রের ২০/ধারা ক উপধারার উদ্ধৃতি করে জিএম কাদের বলেন, ‘আমাকে এরশাদ সাহেব তার অবর্তমানে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে কাজ করতে নির্বাচিত করেছেন। গঠনতন্ত্রের ২০ ধারার ক উপধারায় বলা আছে, চেয়ারম্যান জাপার যে কোনও ব্যক্তিকে নিয়োগ ও নিজের স্থলাভিষিক্ত করতে পারবেন। এইচ এম এরশাদ আমাকে তার স্থলাভিষিক্ত করে গেছেন। মৃত্যুর আগে আমাকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়েছিলেন। মৃত্যুর পর কী হবে সেটা গঠনতন্ত্রে বলা নাই।’ তিনি জানান, এরশাদের মৃত্যুর পর প্রথম প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে তাকে চেয়ারম্যান হিসেবে অভিনন্দিত করা হয়। তিনি আরও জানান, তার (এইচ এম এরশাদ) অবর্তমানে আমাকে স্থলাভিষিক্ত করে গেছেন।
জিএম কাদের বলেন, ‘দলের এমপিদের কাছে জানতে চেয়েছি কার প্রতি তাদের আস্থা আছে। ২৫ জন এমপির মধ্যে ১৫ জন আমার পক্ষে রয়েছেন। এর আগে জাতীয় সংসদে দলের নেতা এরশাদ দিয়েছেন, এমপিদের মতামতের ভিত্তিতেই দিয়েছেন।’ বিরোধী দলীয় নেতার পদ পাওয়া প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, ‘আমরা যা করেছি তা আইনসম্মতভাবে করেছি। গঠনতন্ত্র মোতাবেক করেছি। কাউকে ছোট করার জন্য করিনি।’
সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে কাদের এই কথা বলার সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা জাপা নেতা আনিসুল ইসলাম মাহমুদের বিরুদ্ধে ¯েøাগান দেন। এসময় সংবাদ সম্মেলনে সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হাসান বাবলা, মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীসহ অনেক নেতাকর্মী।
দলের ২৬ এমপির মধ্যে ১৫ জনই জি এম কাদেরকে সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে দেখতে চান। গত মঙ্গলবার জাতীয় সংসদের স্পিকারের কাছে পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের এ বিষয়ে একটি চিঠিও দেন। দলটির বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম কাদের স্বাক্ষরিত স্পিকারকে উল্লেখ করে চিঠিতে বলা হয়, জাতীয় সংসদে বর্তমানে জাতীয় পার্টির প্রধান বিরোধী দল হিসেবে রয়েছে। আমাদের দলের চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধী দলের নেতা ইন্তেকাল করেছেন। এই পদটি বর্তমানে শূন্য রয়েছে। ইতিমধ্যে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়ামের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত সিদ্ধান্ত এবং পার্টির সংসদীয় দলের সংখ্যাগরিষ্ঠ সংসদ সদস্যরা, বিরোধী দলের নেতা হিসেবে জি এম কাদেরের নাম প্রস্তাব করছে। আর এই বিষয়টি চিঠিতে উল্লেখ করেন কাদের।

সাম্প্রতিক সময়ে পার্টির কার্যক্রমে নিষ্ক্রিয় রওশন এরশাদ হাতে গোনা কয়েকজন নেতা-কর্মীর অতি উৎসাহে স্বীয় বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছেন। মৃত্যুর আগে পার্টি চেয়ারম্যান এরশাদ যোগ্যতার বিচারেই রওশন এরশাদের পরিবর্তে ছোট ভাই জিএম কাদেরকে তার অবর্তমানে পার্টি পরিচালনার দায়িত্ব দিয়ে গেছেন। যদিও আনিসুল ইসলাম মাহমুদসহ রওশন সমর্থিত কতিপয় নেতা প্রকাশ্য ঘোষিত এই দায়িত্ব অর্পনকে অস্বীকার করছেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here