জমজমাট অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা

0
31

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভিওআইপি ব্যবসা এখন জমজমাট। অবৈধ ভিওআইপি কল আসছে দেদার। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় তা বন্ধ করতে ব্যর্থ হচ্ছে। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান টেলিটক এই আইনী কাজের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।
জানা যায়, গত অর্থবছরে আন্তর্জাতিক ইনকামিং কল থেকে রাজস্ব পাওয়া গেছে ৯শ’ কোটি টাকা। অথচ এর আগের বছর রাজস্ব পাওয়া যায় ১ হাজার ২শ’ কোটি টাকা। চরীত অর্থবছর আয় ৯শ’ থেকে টাকার বেশি হবে না। অথচ আন্তর্জাতিক ইনকামিং কলের সংখ্যা কমেনি, আগের চেয়ে বহুগুণে বেড়েছে। হাইফ্রিকোয়েন্সি রেডিও লিঙ্কের মাধ্যমে অবাধে এই অবৈধ ব্যবসা চালানো হচ্ছে। শুধু ঢাকা শহরেই নয়, অন্যান্য মহানগর ও জেলা শহরে রেডিও লিঙ্ক ব্যবহারের মাধ্যমে এই অবৈধ কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। বিটিআরসি ও বিটিসিএল’র একশ্রেণী অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী এতে সহযোগিতা করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।
বিটিআরসি সূত্রে জানা যায় যে, প্রতিদিন অন্তত আড়াই কোটি মিনিট অবৈধ ভিওআইপি কল হচ্ছে। আন্তর্জাতিক ইনকামিং কল টারমিনেশন রেট প্রতি মিনিটে ১ দশমিক ৭৫ সেন্ট থেকে ২ দশমিক ৫০ সেন্ট। এই কলরেট বাড়ানোর জন্য মন্ত্রণালয় থেকে একাধিকবার উদ্যোগ নেয়ার পরও সিদ্ধান্ত নেয়া সম্ভব হয়নি। এমনকি সিদ্ধান্ত নেয়ার পরও প্রভাবশালী মহলের চাপের সামনে তা কার্যকর করতে পারেনি মন্ত্রণালয়। অবৈধ কল থেকে ভিওআইপি ব্যবসায়ীরা হাজার হাজার কোটি টাকা লাভ করছে। এই অর্থ বিদেশেই থেকে যাচ্ছে। বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। অবৈধ ইনকামিং কলের কারণে বৈধপথে ইনকামিং কলও কমে গেছে। সরকারের রাজস্ব আয়ও কমে গেছে।
জাতীয় সংসদে অবৈধ ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি উঠেছিল। কিন্তু কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। অবৈধ ভিওআইপি ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে আইন রয়েছে। কিন্তু াতর প্রয়োগ হচ্ছে সীমিত। বিটিআরসি ও র‌্যাব বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে প্রায় ষাট হাজার অবৈধ সিম উদ্ধার করেছে। যার অধিকাংশই রাষ্ট্রীয় সংস্থা টেলিটকের। টেলিটক, রবি, গ্রামীণ ফোন, বাংলা লিঙ্ক, র‌্যাংগস, পিপসল টেলিকমের হাজার হাজার সিম জব্দ ও কয়েক কোটি টাকা জরিমানা করা হয়। বায়োম্যাট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের পরও বিভিন্ন মোবাইল অপারেটররা কিভাবে হাজার হাজার সিম বাজারে ছাড়ছে তাও রহস্যপূর্ণ।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here