অডিও ও চলচ্চিত্রে গান নিয়ে আঁখি আলমগীর

বিনোদন প্রতিবেদক : অডিও ও চলচ্চিত্রে গান গাওয়ার পাশাপাশি দেশ-বিদেশের স্টেজ শো নিয়ে সারা বছরই ব্যস্ত থাকতে হয় আঁখি আলমগীরকে। স¤প্রতি ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ নারী সংগীতশিল্পী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে তার নাম। এর আগে  ছোটবেলায় অভিনয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। সব মিলিয়ে বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন এ শিল্পী। কেমন আছেন? আঁখি উত্তরে বলেন, বেশ ভালো। সময়টা ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তবে ভালো যাচ্ছে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন সেরা সংগীতশিল্পী হিসেবে। অনুভূতি কেমন? আঁখি উত্তরে বলেন, এ অনুভূতি প্রকাশ করার মতো নয়। এটা বলার জন্য বলা নয়। সত্যিই তাই। কারণ আমি এখনো ঘোরের মধ্যে আছি। সব কিছুই স্বপ্ন মনে হচ্ছে। এর আগে ছোটবেলায় জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলাম। তখনো বিশ্বাস হচ্ছিল না। এখনো তেমনটাই হচ্ছে। আরো একটি কথা বলতে চাই। সেটা হচ্ছে, যে গানটির জন্য পুরস্কার পেয়েছি সেটির কথা লিখেছেন শ্রদ্ধেয় গাজী মাজহারুল আনোয়ার। আর সুর করেছেন রুনা লায়লা আন্টি। গানটি সংগীতায়োজন করেছে আমার বন্ধু ইমন সাহা। গানটি রেকর্ডিংয়ের সময় বার বার কেঁদেছিলাম। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা সবাই সাহস দিলেন। গানটি রেকর্ড হওয়ার পর যারা শুনেছিলেন সবাই প্রশংসা করেছেন। আমার মাসহ অনেকেই কেঁদেছেন গানটি শুনে। এর সঙ্গে জড়িত সকলকে এবং শ্রোতা-দর্শক-ভক্তদের অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। এতটা দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েছেন সংগীতে। এখনো গান করে যাচ্ছেন নিজের গতিতে। এর রহস্য কি? আঁখি উত্তরে বলেন, আসলে রহস্যের কিছু নেই। সত্যি বলতে আমি সব সময় হাসি খুশি থাকতে পছন্দ করি। ইতিবাচক চিন্তা করতে পছন্দ করি। দীর্ঘদিন ধরে পথ চলছি সংগীতে, এজন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞ আমার ভক্ত-শ্রোতাদের প্রতি। তারা আমার গান শুনতে চান বলেই আমি কাজ করছি। না হলে তো সেটা সম্ভব ছিল না। আমি একটি বিষয় সব সময় বিশ্বাস করি। ভালো শিল্পী হতে হলে তার আগে অবশ্যই ভালো মানুষ হতে হবে। আপনার এখনকার ব্যস্ততা কি নিয়ে? আঁখি বলেন, এখন শো নিয়েই ব্যস্ততা চলছে। শীতের আমেজ শুরু হয়ে গেছে। এটা শোয়ের মৌসুম। যদিও সারা বছরই আমাকে শো নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হয়। এই ব্যস্ততা গত বিশ বছর ধরেই চলছে। এখন ফেসবুকে পোস্ট করি। তাই সবাই দেখছেন ও জানছেন। আগেতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ছিল না। নতুন গানের কি খবর? আঁখি বলেন, আমার সর্বশেষ ভিডিওসহ গান ছিল ‘ল্যায়লা’। গানটি ধ্রæব মিউজিক স্টেশন থেকে প্রকাশের পর খুব ভালো সাড়া পেয়েছি। এ গানটিকে আরো সময় দিতে হবে। এর বাইরে নতুন আরো দুটি গানের কাজ শেষ হয়েছে। সেগুলো ভিডিওসহ আসবে। তবে কবে এবং কোথা থেকে আসবে তা ঠিক করিনি। প্লেব্যাকের কি খবর? আঁখি বলেন,  প্লেব্যাক করছি নিয়মিত। এরইমধ্যে নতুন কয়েকটি সিনেমার গানে কন্ঠ দিয়েছি। এ গানগুলোও সামনে প্রকাশ হবে। আরো কিছু প্রস্তাব রয়েছে। ব্যাটে বলে মিললে করে ফেলবো। এখন গানের অবস্থা কেমন দেখছেন? আঁখি উত্তরে বলেন, এখন অবস্থা মোটামুটি ভালো। অনেক কোম্পানি নতুন গান প্রকাশে এগিয়ে আসছে। আবার নিজের গান নিজের ইউটিউব চ্যানেলেও প্রকাশ করা যাচ্ছে। অ্যালবামের যুগ তো নেই। ডিজিটালি গান প্রকাশ হচ্ছে। সিঙ্গেলই সবাই প্রকাশ করছে। আমি মনে করি ডিজিটালি গান প্রকাশে পুরোপুরি অভ্যস্ত হয়ে গেলে ইন্ডাস্ট্রি আরো ভালোর দিকে যাবে। আর একটি বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে। ভালো কথা-সুরের মৌলিক গানের ওপর জোর দিতে হবে বেশি।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here