রেলযোগে ডিজেল আমদানীতে প্রিমিয়াম ও দাম বেশি নিচ্ছে ভারত

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতের শিলিগুড়ি থেকে বাংলাদেশের পাবর্তীপুর ডিপোতে ডিজেল আনার জন্য পাইপ লাইন স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে। ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ নামে এই পাইপলাইন প্রকল্পে বাংলাদেশ অংশ অর্থ যোগান দিচ্ছে বাংলাদেশ। তবে চুড়ান্তভাবে এতে বাংলাদেশই লাভবান হচ্ছে। এ পাইপ লাইন স্থাপনের কাজ শেষ হতে দু’বছর লেগে যাবে। এই সময় পর্যন্ত রেলপথে ডিজেল আমদানী করতে হচ্ছে। ২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশ রেল ওয়াগানের মাধ্যমে ভারত থেকে ডিজেল আমদানী করছে। এতে স্বল্প ব্যয়ে দ্রæত আমদানী করা গেলে, ডিজেলের মুল্য, প্রিমিয়াম বাবদ ভারত তুলনামূলকভাবে অধিক পরিমানে অর্থ নিচ্ছে।
জ্বালানি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশের পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ও ভারতের রাষ্ট্রয়াত্ব প্রতিষ্ঠান নুমালিগড় রিফাইনারি লি: এর মধ্যে সম্পাদিত সমঝোতা স্মারকের ভিত্তিতে ডিজেল আনা হচ্ছে। ২০১৫ সালে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের পর ২০১৭ সালে পনের বছরের জন্য সেলস এন্ড পারচেজ এগ্রিমেন্ট হয়। নুমালিগড় রিফাইনারি থেকে এ বছর রেল ওয়াগানে ১ লাখ ১০ হাজার ব্যারল ডিজেল আমদানী করা হচ্ছে। এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত এসেছে ২৬ হাজার ৬শ ব্যারেল। অবশিষ্ট ৮৩ হাজার ৬ ব্যারেল ডিসেম্বরের মধ্যে এসে পৌছাবে। ব্যারেল প্রতি ডিজেলের প্রিমিয়ামে বাবদ রাখা হচ্ছে ৫ দশমিক ৫০ মার্কিন ডলার। প্রিমিয়ামের এই হার তুলনাম‚লকভাবে বেশি বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন। তাদের মতে ব্যারেল প্রতি প্রিমিয়াম সর্বোচ্চ ৪ থেকে ৫ মার্কিন ডলার হওয়া উচিত। গত২৭শ মার্চ ঢাকায় বিপিসির কার্যালয়ে বিপিসির কর্মকর্তা ও ভারতের নুমালিগড় রিফাইনারি লি: এর প্রতিনিধিদের বৈঠকে টাইমস অব কন্ডিশন নির্ধারিত হয়। তারা প্রিমিয়াম বাবদ মোট নেবে ৬৮ দশমিক ৬৫৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ব্যারেল প্রতি ডিজেলের দামও বেশি নেয়া হয়েছে। ব্যারেল প্রতি ডিজেলের দাম ধরা হয়েছে ৭৮ দশমিক ১৭ মার্কিন ডলার। যা সেই সময়কার আন্তর্জাতিক বাজারমূল্য অপেক্ষা দেড় ডলার বেশি। ডিজেলের মূল্যবাবদ বাংলাদেশের ব্যয় হবে ৫৭৮ কোটি ৮০ লাখ টাকা। ইনসিওরেন্স বাবদ ৩ কোটি ৫৯ লাখ টাকাসহ প্রিমিয়াম ডিজেলের মূল্য, ইনসিওরেন্স নিয়ে মোট ব্যয় হবে ৫৮২ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। ভারতীয় পক্ষ কর্তৃক মূল্য ও প্রিমিয়াম বাবদ বেশি অর্থ নেয়ার ব্যাপারে আপত্তি জানান হয়েছিল। তারা তাতে রাজি হয়নি। অন্য উৎস থেকে জাহাজযোগে ডিজেল আমদানী অধিকতর ব্যয় সাপেক্ষ বলে এতেই বাংলাদেশ লাভবান হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here