আফগানিস্তানকে হারালো বাংলাদেশ

0
133

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আফগানদের বিপক্ষে জয়ের নায়ক অধিনায়ক মামুনুল ইসলামশেষ জয়টা এসেছিল সেই কবে, ১৯৮৬ সালে। এরপর পেরিয়ে গেছে ২৮টি বছর। দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমস ফুটবলে শেষ জয়টি তুলে নেওয়ার পর আরও একটি জয় মিলল সেই কোরিয়ার মাটিতেই। এবার ইনচনে। ইনচন এশিয়ান গেমস ফুটবল প্রতিযোগিতা শুরুর প্রথম দিনেই গতকাল আফগানিস্তানকে ১-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল।
জয়সূচক গোলটি এসেছে অধিনায়ক মামুনুল ইসলামের পা থেকে। ইনচন যাওয়ার আগে এই মামুনুলই কথা দিয়ে গিয়েছিলেন, তাঁরা লড়াই করবেন। অধিনায়ক নিজের কথা রেখেছেন। আজ লড়াকু ফুটবল খেলেই সাফ চ্যাম্পিয়ন আফগানদের বধ করেছে লোডভিক ডি ক্রুইফের ছেলেরা।
ফিফার তালিকায় বাংলাদেশের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে এখন আফগানিস্তান। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ হলেও সাম্প্রতিককালে আন্তর্জাতিক ফুটবলে আফগানদের পথচলাটা বেশ দাপটেরই। গত বছরের সেপ্টেম্বরে আফগানিস্তান জাতীয় দল নেপালের কাঠমান্ডুতে অসামান্য দাপটে জিতে নিয়েছিল সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা। ইউরোপ-অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক খেলোয়াড়দের সমন্বয়ে এশিয়াড ফুটবলেও যথেষ্ট সমীহ-জাগানিয়া দল এই আফগানিস্তান। গ্রুপ ‘বি’তে শীর্ষ বাছাই উজবেকিস্তানের পর দ্বিতীয় বাছাই তারাই। সেই আফগানদের পরাভূত করাটা সাফল্য-খরায় ভুগতে থাকা এ দেশের ক্রীড়াঙ্গনের জন্য যে যথেষ্ট স্বস্তিরই, সে কথা নতুন করে বলার কিছু নেই।
আফগানিস্তানের বিপক্ষে কৌশলগত ও পদ্ধতিগত ফুটবল খেলেই জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। রক্ষণকে মজবুত রেখে প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হওয়ার কৌশল খুব ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা। ‘প্রতিপক্ষকে জায়গা দেব না’Íএই নীতিতে বাংলাদেশ দল কতটা অবিচল ছিল তার প্রমাণ মিলছে পুরো খেলায় ফাউলের পরিসংখ্যানেই। আফগানিস্তান ম্যাচে যেখানে ফাউল করেছে ১১টি, সেখানে বাংলাদেশের ফাউলের সংখ্যা ২৮টি!
পুরো ম্যাচেই বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল আফগানরা। পরিসংখ্যান বলছে, আফগানরা যেখানে ৬৬ শতাংশ সময় বলে পা রেখেছে, বাংলাদেশ সেখানে বল দখলে রেখেছে ৩৪ শতাংশ সময়। কর্নার প্রাপ্তিতেও এগিয়ে আফগানিস্তান। তাদের ৮ কর্নারের বিপরীতে বাংলাদেশের প্রাপ্ত কর্নার মাত্র দুটি।
এভাবেই ৮৩ মিনিট পর্যন্ত গোলশূন্য ছিল খেলাটি। ৮৩ মিনিটে মামুনুলের গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। কৌশলগত খেলাতেই বাকি সময়টা আফগানদের ঠেকিয়ে রাখতে খুব একটা সমস্যা হয়নি বাংলাদেশের রক্ষণের। সূত্র: এশিয়ান গেমস ওয়েবসাইট।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here