হু-র সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন আমেরিকার

0
115

নিউজ ডেস্ক: আমেরিকা গত ১৮ মে হু-কে ৩০ দিন সময় দিয়ে বলেছিলেন, এর মধ্যে ‘উল্লেখযোগ্য কোনও পদক্ষেপ’ না করলে সদস্যপদ প্রত্যাহারের কথা ভাববে । অনুদান স্থগিত করেছিলেন গত মাসে। অভিযোগ করেছিলেন, চিনকে আড়াল করতে গিয়ে বিশ্বকে করোনার সঙ্কটের মুখে ঠেলে দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ১২ দিন পেরোনোর আগেই চরম সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন । ঘোষণা করলেন, হু-র সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করছে তাঁর দেশ। কারণ, করোনা অতিমারি নিয়ে আমেরিকার উদ্বেগ সত্ত্বেও নিজেদের প্রয়োজনীয় সংস্কার করেনি তারা। ট্রাম্প জানিয়েছেন, হু-র তহবিলের তাঁরা যে অর্থ দিতেন, তা অন্যান্য খাতে ব্যবহার করা হবে। হু-র তহবিলে বছরে সর্বোচ্চ অনুদান (৪৫ কোটি ডলার) দিত আমেরিকাই। ফলে নিঃসন্দেহে সমস্যায় পড়ল হু। ট্রাম্পের কথায়, ‘‘চিনে যখন ভাইরাসটা প্রথম পাওয়া গেল, তখন সে দেশের কর্তারা নিজেদের দায়বদ্ধতার কথা ভুলে হু-কে চাপ দিয়েছেন যাতে তারা বিশ্বকে ভুল পথে চালিত করে। চিনা সরকারের ভুলের মাসুল দিচ্ছে বিশ্ব।’’
শুধু করোনা নয়, বাণিজ্য এবং এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে আধিপত্য বিস্তার নিয়েও চিনকে বিঁধেছেন ট্রাম্প। বলেছেন, ‘‘চিন বলেছিল, হংকংয়ের স্বশাসনকে রক্ষা করবে। সেই কথা তারা রাখেনি। যাঁরা হংকংয়ের স্বশাসন খর্ব করলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করব।’’ একই সঙ্গে জানিয়েছেন, দেশের নিরাপত্তার কথা ভেবে বাছাই করা কিছু চিনা নাগরিককে আপাতত আমেরিকায় ঢুকতে দেওয়া হবে না।
আমেরিকায় করোনায় মৃতের সংখ্যা এখন প্রায় ১ লক্ষ ৪ হাজার। গত কালের হিসেব, নতুন করে প্রায় সাড়ে ২৬ হাজার সংক্রমণের খবর মিলেছে ব্রাজিল থেকে। হাজারেরও বেশি মৃত্যু হয়েছে ২৪ ঘণ্টায়। সংক্রমণের নিরিখে তৃতীয় স্থানে থাকা রাশিয়ার দেওয়া মৃতের পরিসংখ্যান নিয়ে গোড়া থেকেই সন্দিহান ছিল বহু দেশ। ঘটনাচক্রে আজই এপ্রিলের করোনা-মৃত্যুর সংখ্যা নতুন করে জানিয়েছে মস্কো। আগে যা ছিল ৬৩৬, তা বেড়ে হয়েছে ১৫৬১— প্রায় দ্বিগুণ! জার্মানি অবশ্য আরও এক দফা লকডাউন শিথিল করে ধীরে ধীরে ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঁচ পেতেই ফের সিঁদুরে মেঘ দেখছে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দেশ। সংক্রমণ কিছুটা কমের দিকে থাকায় গত বুধবার সবে স্কুল খুলেছিল সোলে। ফের কিছু গুচ্ছ সংক্রমণের খবর মেলায় রাজধানী ও শহরতলি এলাকার ৫০০টিরও বেশি স্কুল আজ বন্ধ করে দিল প্রশাসন। এ দিকে রসিকতা করতে গিয়ে বিপাকে ইন্দোনেশিয়ার নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী মহম্মদ মাহফুদ এমডি স¤প্রতি বলেন, ‘‘করোনা অনেকটা স্ত্রীর মতো। প্রথমে মনে হবে, নিয়ন্ত্রণে আসবেই। পরে মনে হবে, সেটা সম্ভব না। তখন মানিয়ে চলতে শিখে যাবেন।’’ তাঁর এই মন্তব্যে ক্ষুব্ধ অনেকেই।

Share on Facebook