চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের থেকে সুপারিশমালা আহবান শিল্প সচিবের

0
203

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এনডিসি চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের পক্ষে চিটাগাং চেম্বার থেকে আসন্ন শিল্পনীতি-২০১৫ এর চূড়ান্ত খসড়ায় অন্তর্ভূক্তির জন্য সুপারিশমালা আহবান করেছেন। ১১ এপ্রিল সকালে শিল্প মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এবং দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সহায়তায় জাতীয় শিল্পনীতি-২০১৫ এর খসড়া চূড়ান্তকরণের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প সচিব এ আহবান জানান। তিনি বলেন-শিল্পনীতি প্রণয়নের প্রাক্কালে বিভিন্ন অঞ্চলে ব্যবসায়ীদের সাথে বিশদ ও উন্মুক্ত আলোচনার আয়োজন এবারই প্রথম। বেসরকারী খাতকে প্রবৃদ্ধির চালিকা শক্তি উল্লেখ করে উদ্যোক্তাদের জন্য ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করা, বৈষম্যহীন শিল্প ব্যবস্থা এবং শিল্প প্রতিষ্ঠায় ব্যাংক ঋণ সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনার লক্ষ্য এবারের শিল্পনীতি প্রণয়নে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে বলেও সভায় অবহিত করেন। সভায় মূল প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন’র সদস্য প্রফেসর ড. এম. আবুল কাসেম মজুমদার।
স্বাগতঃ বক্তব্যে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম একটি কার্যকর ও সমন্বিত শিল্পনীতি প্রণয়ন হলে শিল্পায়নের মাধ্যমে দেশে আমদানি নির্ভরতা ও বেকারত্ব হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে শিল্পের অবদান বৃদ্ধি হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মাহবুবুল আলম তাঁর বক্তব্যে রুগ্ন শিল্প চিহ্নিত করে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা, নির্মানাধীন শিল্পাঞ্চলসমূহের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা, দেশী ও বিদেশী উভয় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কর অবকাশসহ বৈষম্যহীন সুবিধা প্রদান, বিনিয়োগকারীদের জন্য ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করা, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও বিভিন্ন প্রতিকূল অবস্থায় ব্যাংক ঋণের সুদ মওকূফ এবং শিল্পাঞ্চল ও শিল্পোৎপাদন কার্যক্রমকে হরতাল-অবরোধসহ সকল প্রকার রাজনৈতিক কর্মকান্ডের আওতামুক্ত রাখার নীতি প্রণয়নের সুপারিশ করেন।
চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ চট্টগ্রামের আনোয়ারায় অবস্থিত কোরিয়ান ইপিজেড-এ প্রয়োজনীয় জ্বালানী সংকটের পাশাপাশি এর ২৫০০ একরের মধ্যে মাত্র ৫০০ একর জায়গা ব্যবহৃত হচ্ছে বলে জানান। তিনি এ শিল্পাঞ্চলের কাঙ্খিত সক্ষমতা ও কর্মসংস্থানের লক্ষ্য অর্জনের বৃহৎ স্বার্থে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামে অব্যবহৃত জমি ব্যবহার করে শিল্পায়নের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণের জন্য শিল্প সচিবের প্রতি বিবেচনার অনুরোধ জানান। সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পরাগ। বিল্ড’র সিইও ফেরদৌস আরা বেগম সভার সার সংক্ষেপ উপস্থাপন করেন এবং  চিটাগাং চেম্বার পরিচালকদ্বয় এম. এ. মোতালেব ও মাহফুজুল হক শাহ, চেম্বারের প্রাক্তন সভাপতি মির্জা আবু মনসুর, যায় যায় দিন-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কাজী রুকুনউদ্দীন আহমেদ, বিকেএমইএ’র শওকত ওসমান, মেটকো ডেইরী’র নেছার আহমেদ, বিএসআরএম’র নেওয়াজ মোঃ ইশরাত কবির ও এলিট পেইন্ট’র সুব্রত দেবসহ চেম্বারের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ সভায় বক্তব্য রাখেন। এ সময় চেম্বার পরিচালকবৃন্দ কামাল মোস্তফা চৌধুরী, মোঃ অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), মাহবুবুল হক চৌধুরী (বাবর), মোঃ আমজাদ হোসেন চৌধুরী ও অঞ্জন শেখর দাশ, শিল্প মন্ত্রণালয়’র উপ সচিব মোঃ শওকত আলী, সিনিয়র সহকারী সচিব মোঃ সলিম উল্লাহ, আইএফসি’র প্রোগ্রাম অপারেশন কর্মকর্তা মোঃ লুৎফুল্লাহ, বিসিক, বিএসটিআই ও কাফকোসহ সংশ্লিষ্ট সরকারী দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, ট্রেডবডি নেতৃবৃন্দ এবং উদ্যোক্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here