গলাচিপার পানখালী ব্রীজ এখন মরণ ফাঁদ

0
212

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ঃ পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা চিকনিকান্দী ইউনিয়নের পানখালী গ্রামের ব্রীজটি যেন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। ১৯৯৬ ইং সালে এল জি ই ডি এর অর্থায়নে র্নিমান করা হয় এই ব্রীজটি। দির্ঘ ১৮ বছর অতিবাহিত হলেও ব্রীজটি সংস্কার না করার ফলে এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, ঝুকি পূর্ন ব্রীজটি দিয়ে প্রতিদিন স্কুল ছাত্র/ ছাত্রী সহ এলাকার প্রায় শত শত লোকজন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। দিনের পর দিন এলাকাবাসীর এ দুর্ভোগ যেন দেখার মতো কেহ নেই। স্থানীয় জন প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকেও কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। সরেজমিনে দেখা যায়, ব্রীজটির অবস্থা চলাচলের একেবারেই অনুপোযোগী যে কোন মূহুর্তে ঘটে যেতে পারে অনাকাংক্ষিত দুর্ঘটনা। চিকনিকান্দী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মধ্যে ভয়াবহ ঝুকিপূর্ন ব্রীজের র্পূব পারে  রয়েছে একটি সরকারি প্রাইমারি স্কুল, একটি উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়, একটি হাফিজিয়া মাদ্রাসা এবং একটি দাখিল মাদ্রাসা, পশ্চিম পারে একটি জম জমাট বাজার এবং আর একটি হাফিজিয়া মাদ্রাসা। ভয়াবহ ঝুকি পূর্ন এই ব্রীজটি দিয়ে স্কুলগামী কোমল মতি শিশু কিশোর সহ বিভিন্ন পেশার মানুষ চলাচল করছে। এ ব্যপারে চিকনিকান্দী ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদ হোসেন বাদল জানান, ব্রীজটির  পূর্ন নির্মানের জন্য জেলা পরিষদে ২ থেকে ৩ মাস আগে আবেদন করলেও আজ পর্যন্ত জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা গ্রেহন করা হয়নি। তিনি আরো বলেন, গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার এর সাথে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। ব্রীজটি দ্রুত সংস্কার না করা হলে এক দিকে যেমন চরম ভোগান্তির স্বীকার হবেন এলকার জনসাধারন তেমনি বাধাগ্রস্থ  হতে পারে ঐ এলাকার শিক্ষার্থীদের স্কুলের পাঠদান। এলাকাবাসীর প্রত্যসা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ব্রীজটি দ্রুত সংস্কার করে এলাকার জনসাধারনের ভোগান্তি লাঘবে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রেহন করবে।

Share on Facebook