দেশীয় কয়লা হবে আগামীদিনের প্রধান জ্বালানি : তাজুল ইসলাম

0
153

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম বলেছেন-ভূ-গর্ভ থেকে কয়লা উত্তোলন করা হলে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটবে বলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়েছিল। কিন্তু বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কর্তৃপক্ষ সফল্যজনক ভাবে কয়লা উত্তোলন করে সকল বিভ্রান্তির জবাব দিয়েছে। বড়পুকুরিয়ার কয়লা দিয়ে ২৫০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হচ্ছে। বড়পুকুরিয়ার সাফল্যকে কাজে লাগিয়ে দীঘিপাড়া কয়লা ক্ষেত্র থেকে কয়লা উত্তোলনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আগামীতে বড়পুকুরিয়া ও দীঘিপাড়ার কয়লা দিয়ে ২ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদান হবে। আজ শনিবার বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি পরিদর্শনে সংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কমিটির সদস্য আবু জাহির এমপি, জাতীয় সংসদের অতিরিক্ত সচিব ও স্থায়ী কমিটির সচিব গোলাম মোস্তফা, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আমিনুজ্জামান,  মহাব্যস্থাপক (মাইনিং) প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমদ, মহাব্যস্থাপক (মাইন অপারেশন) নুরুজ্জামান, মহাব্যস্থাপক ও কোম্পানী সচিব  আবুল কাশেম প্রধানীয়া, মহাব্যস্থাপক (পরিকল্পনা ও পরিবেশ) এবিএম কামরুজ্জামান, উপ-মহাব্যস্থাপক (প্রশাসন) শরিফুল আলম সহ খনির পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ। স্থায়ী কমিটির কমিটির সদস্য আবু জাহির এমপি বলেন- বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে ১৩ হাজার মেগাওয়াট। ২০২০ সালের মধ্যে ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। গ্যাস দিয়ে ওই পরিমান বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব নয়। তাই আগামী দিনে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রধান জ¦ালানি হবে কয়লা। এ কারণেই সরকার দিনাজপুরের নবাবগঞ্জের দীঘি পাড়া কয়লা ক্ষেত্র উন্নয়নের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এ সময় বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আমিনুজ্জামান বলেন-দেশের প্রাথমিক জ্বালানি হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাসের সাথে কয়লার ভূমিকা ক্রমান্নয়ে এ দেশে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ খনি থেকে উৎপাদিত হচ্ছে উন্নত মানের কয়লা। এর তাপজনন ক্ষমতা অনেক বেশী। সালফারের পরিমান অতি নগন্য এবং বড়পুকুরিয়ার কয়লা অনেক বেশী পরিবেশবান্ধব। পরে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা জয়পুরহাটের ইনস্টিটিউট অব মাইনিং মিনারোলজি অ্যান্ড মেটালারজি ও দীঘিপাড়া কয়লা ক্ষেত্র পরিদর্শনে যান। উল্লেখ্য, গত শুক্রবার দুপুরে বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কমিটির সদস্য আবু জাহির এমপি, জাতীয় সংসদের অতিরিক্ত সচিব ও স্থায়ী কমিটির সচিব গোলাম মোস্তফা বিমানযোগে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি আসেন। রাতে খনির কর্মকর্তাদের সাথে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here