admoc
Kal lo

,

admoc
Notice :

চট্টগ্রামে দেশীয় তৈরী অস্ত্র এক নলা বন্দুকসহ চার ডাকাত গ্রেফতার

9চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : নগরীর হালিশহর থানা পুলিশ অভিযাণ চালিয়ে রবিবার রাত ১১.৩০ মিনিটের সময় হালিশহর থানাধীন বি-ব্লক, ২নং রোড, ১৬নং লেইনের শেষ প্রান্তে খালের পাড়ে রাস্তায় দেশীয় তৈরী অস্ত্রশস্ত্রসহ ডাকাতির পরিকল্পনা কালে ০৪(চার) ডাকাতকে হালিশহর থানার পুলিশ গ্রেফতার করে। তাদের সহযোগী ০৩জন পালিয়ে যায়। ঘটনার বিবরণে জানা যায় হালিশহর থানার অফিসার ইনচার্জের নেতৃত্বে এসআই মোজাম্মেল হক এসআই কানন চৌধুরী এএসআই ফয়েজুর রহিম সঙ্গীয় ফোর্সসহ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ইং ০৮-০৬-২০১৪ তারিখ রাত্র ১১.৩০ মিনিটের সময় হালিশহর থানাধীন বি-ব্লক, ২নং রোড, ১৬নং লেইনের শেষ প্রান্তে খালের পাড়ে রাস্তায় দেশীয় তৈরী অস্ত্রশস্ত্রসহ ডাকাতির পরিকল্পনা কালে ০৪(চার) জন ডাকাত ১। মোঃ জামশেদ (২৪) পিতা-মৃত নুর মোহাম্মদ, মাতা-রেহানা বেগম, সাং-পান ওয়ালাপাড়া আব্দুল মুনাফের বাড়ী, থানা-ডবলমুরিং, জেলা-চট্টগ্রাম, ২। মোঃ আল আমিন(২৮) পিতা-মোঃ আমির হোসেন, মাতা-শান্তি আরা বেগম, সাং-টামটা লালু সর্দারের বাড়ী, পোঃ ইলিয়টগঞ্জ, থানা-দাউদকান্দি, জেলা-কুমিল্লা, বর্তমানে-রমনা আ/এ, ২২ কলোনী সংলগ্ন আরিফের ভাড়াঘর, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৩। খোরশেদ আলম(৪২) পিতা-মৃত নুরুজ্জামান, মাতা-মনোয়ারা বেগম, সাং-বাসা নং-০৪, লেইন নং-০৩, রোড নং-০১, ব্লক-এ, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৪। মোঃ খোকন(২৪) পিতা-মৃত সামির আহম্মদ, মাতা-সাফিয়া খাতুন সাং-লক্ষ্যাচর বোর্ড বাজার, হাজী বশরের বাড়ী, থানা-কর্ণফুলী, জেলা-চট্টগ্রাম, বর্তমানে-মোল্লাপাড়া একরাম শাহ্ মাজারের পিছনে, সৈয়দ সওদাগরের বাড়ী, থানা-ডবলমুরিং জেলা-চট্টগ্রাম। আটকৃতদের কাছ থেকে একটি দেশীয় তৈরী এক নলা বন্দুক, দুই রাউন্ড কার্তুজ, ০২টি ছোরা, একটি টিপ ছুরি উদ্ধার করা হয়। এসময় তাদের সহযোগী ৫। মোঃ জাবেদ(৩০), পিতা-অজ্ঞাত, সাং-মাদার বাড়ী, কামাল গেইট, থানা-সদরঘাট, জেলা-চট্টগ্রাম, ৬। মোঃ সুমন(২৫) পিতা-আবুল কালাম, সাং-ঈদগা বরফ কল, বারেক মেম্বার লেইন, কালাম সওদাগরের বাড়ী, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৭। জাহেদ (২৭) পিতা- মৃত মোঃ ইউনুছ, সাং-মধ্যম রামপুর, ফকির গলি, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রামগণ পালিয়ে যায়। হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দৈনিক সরেজমিন বার্তাকে জানান,উল্লেখিত আসামীগণ হালিশহর থানাধীন রমনা আ/এ, শান্তিবাগ এ-ব্লক, বি-ব্লকসহ ডবলমুরিং ও পাহাড়তলী থানা এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ অস্ত্রশস্ত্র সহ ছিনতাই, ডাকাতি করে আসছিল। ধৃত ১নং আসামী জামশেদ ও জিতু উক্ত গ্রুপের লিডার। তারা মহিলা দিয়ে মিস কলের মাধ্যমে সহজ সরল লোকদের ফাঁদে ফেলে সম্পর্ক সৃষ্টির মাধ্যম মহিলা দিয়ে বিভিন্ন লোকজনদের বাসায় দাওয়াত দেয়। সহজ সরল লোকজন না বুঝে উক্ত ফাঁদে পা দিয়ে মহিলার দাওয়াত গ্রহণ করে। নির্দিষ্ট দিন ও সময়ে উক্ত ব্যক্তি মহিলার দেওয়া ঠিকানা মতে বাসার আশপাশে আসলে ঐ মহিলাকে মোবাইলে ফোন করে। তখন উক্ত মহিলা ব্যক্তিটিকে রির্সিভ করার জন্য ডাকাত দলের একজনকে পাঠায়। ডাকাত দলের উক্ত সদস্য ব্যক্তিটিকে রির্সিভ করে মহিলার বাসায় যাওয়ার অভিনয় করে পূর্ব নির্ধারিত নির্জন স্থানে আগে থেকে উৎপেতে থাকা তাদের গ্রুপের অন্যান্য সদস্যদের নিকট পৌছায়। তখন উক্ত ডাকাত দলের সদস্যরা সহজ সরল ব্যক্তিকে আটক করে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তার পকেটে থাকা টাকা পয়সা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। শুধু এতেই ক্ষান্ত হয় না, ডাকাতা দল উক্ত ব্যক্তিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তার পরিবাওে মোবাইল ফোনে রিং দিয়ে মুক্তি পণ বাবদ বিকাশের মাধ্যমে বড় অংকের টাকা অথবা উক্ত ব্যক্তির এমটি কার্ড নিয়ে পিন কোর্ডের মাধ্যমে বুথ থেকে বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। দীর্ঘদিন যাবৎ এ চক্রটি হালিশহর, ডবলমুরিং, পাহাড়তলী এবং আকবরশাহ্ থানা এলাকায় উক্ত ঘটনা ঘটিয়ে আসছে। চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে তাদের ১৫ হতে ২০ সদস্যের একটি টিম উক্ত ঘটনা ঘটিয়ে আসছে। তাদের অন্যান্য সহযোগীরা হল ১। মোঃ হৃদয় (১৮) পিতা-মোঃ রফিক গ্রাম-চুচ্চা বাজার, থানা-বার হাট্টা জেলা-নেত্রকোণা, বর্তমানে-শান্তিবাগ বক্করের চায়ের দোকানের সামনে, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ২। মোঃ খায়রুল আলম@খায়ের(২৮) পিতা-মৃত সুলতান আহম্মদ, মাতা-বিবি হাজেরা, সাং-সুবর্নচর (হাফেজের বাড়ী), থানা-চরজব্বর, জেলা-নোয়াখালী, বর্তমানে-বাড়ী নং-২৫, লেইন নং-০৯, বিডিআর মাঠের কোণায়, খায়ের আলম এর বাসা, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৩। দিদারুল আলম@নিপু (২৭) পিতা-আবু ছিদ্দিক সাং-উত্তর আগ্রাবাদ রঙ্গীপাড়া, সুলতাল মিস্ত্রির বাড়ী, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৪। মোঃ বেলাল(৩০), পিতা-মোঃ মোস্তফা, সাং-হরিরামপুর কালা মিয়ার বাড়ী, থানা-সুধারাম, জেলা-নোয়াখালী, বর্তমানে-ঈদগাও হাজারদীঘির পাড়, হারুন সাহেবের ভাড়াঘর, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৫। জিতু (২৮) পিতা-আব্দুল মালেক সাং-মধ্যম রামপুর, সোনা শাহ মাজার রোড, বারেক মেম্বারের বাড়ী, ৬। মোঃ মামুন (৩০) পিতা-আবুল কালাম সওদাগর, সাং-মধ্যম রামপুর, ৭। মোঃ ইলিয়াছ@রকি(২৪), পিতা-মৃত বশর (ড্রাইভার), সাং-বাঁশবাড়িয়া(মজিব ধনের বাড়ী), থানা-সীতাকুন্ড, জেলা-চট্টগ্রাম, বর্তমানে-ঈদগাঁও বরফ কল মোজাহিদের বিল্ডিং, থানা-হালিশহর, জেলা-চট্টগ্রাম, ৮। নিপু (২৭), পিতা-আবু ছিদ্দিক, সাং-রঙ্গিপাড়া, ছোট মসজিদের পাশে, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, বর্তমানে-বসুন্ধরা আ/এ, থানা-হালিশহর জেলা-চট্টগ্রাম, ৯। জুম্মন (৩২) পিতা-আবুল কালাম মিস্ত্রিী, সাং-আগ্রাবাদ সিডিএ, ৫নং রোড, থানা-ডবলমুরিং, জেলা-চট্টগ্রাম। ইতিপূর্বে খায়ের, বেলাল, নিপু, মামুন, ইলিয়াছ @ রকি গ্রেফতার হইয়া বর্তমানে জেল হাজতে আছে। ধৃত আল আমিন এবং জেল হাজতে থাকা ইলিয়াছ@রকি উক্ত দলের বাহকের ভূমিকা পালন করিয়া সহজ সরল ব্যক্তির পথ প্রদর্শক হিসেবে কাজ করে। পুরো ঘটনায় মহিলার নাম ঠিকানা অজ্ঞাত থাকিয়া যায়। হালিশহর থানা পুলিশ দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করিয়া গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উক্ত টিমকে সনাক্ত করে। উল্লেখিত আসামীদের গ্রেফতার করে।

Share Button
Share on Facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী