স্ত্রীর হাতুড়ি পেটায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু

0
154

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি : ঈশ্বরদীতে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে স্বামী হত্যার অভিযোগে শাহীনা আক্তার রোকসানা (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত শাহানুর রহমান লিপু (৪৫) পেশায় একজন ঠিকাদার ও ঈশ্বরদী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি। হত্যার সাতদিন পর পুলিশ সেফটি ট্যাংক থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। লিপুর স্বজনরা জানান, লিপুর সাথে শাহীনার দীর্ঘ দিন ধরে পারিবারিক কলহ চলছিল। গত ১৫ জুলাই বিকেলে তাদের মধ্যে আবারও ঝগড়া হয়। ওই দিন থেকেই লিপুকে আর খুঁজে পাচ্ছেন না তারা। বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়ায় তারা পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ সোমবার গভীর রাতে শাহীনাকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে হত্যার কথা স্বীকার করে। লিপু-শাহীনার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে।
এদিকে হত্যাকা-ের কথা স্বীকার করে গ্রেফতার শাহীনা সাংবাদিকদের জানান, ওই দিন তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে লিপু তাকে বেদম প্রহার করে। এসময় তাদের মেয়ে এগিয়ে এলে লিপু তাকে গলা টিপে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় সে (শাহীনা) পেছন থেকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করলে লিপুর মৃত্যু হয়।
শাহীনা আরও জানান, হত্যার পরও স্বামীর লাশ দুই দিন ঘরে লুকিয়ে রেখেছিলেন তিনি। এরপর নিজেকে বাঁচাতে ১৭ জুলাই বালির বস্তা দিয়ে লাশ বেঁধে বাড়ির সেফটি ট্যাংকিতে ফেলে দেন। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মঙ্গলবার সকালে সেফটি ট্যাংকের ভেতর থেকে লিপুর গলিত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
ঈশ্বরদী থানার ওসি বিমান কুমার দাস বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ঈশ্বরদী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করেছে শাহীনা বলেও জানান তিনি।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here