ফুটপাত হকারমুক্ত মেয়রের ঘোষণার পরই গুলিস্তানে কয়েক দফা সংঘর্ষ

0
153

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকার গুলিস্তানে ফুটপাতের হকারদের সঙ্গে বিপণি বিতানের ব্যবসায়ীদের কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়েছে এবং এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। জনদুর্ভোগ চরম আকার নেয়। ফুটপাত থেকে হকারদের উচ্ছেদ করে যান চলাচলের উপযোগী করতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের ঘোষণার পর উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিদর্শনের পরপরই এই সংঘর্ষ বাঁধে। বেলা ২টায় মেয়র চলে যাওয়ার পরপরই ঢাকা ট্রেড সেন্টারের দোকান মালিক ও ফ্লাইভারের নিচে ফুটপাতে বসা হকারদের মধ্যে মারামারি শুরু হয়।
সংঘর্ষের কারণে বায়তুল মোকাররম থেকে গুলিস্তান, নবাবপুর এবং ফুলবাড়িয়া বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন সড়কে গাড়ি চলাচল এবং গুলিস্তানে আসাদ পুলিশ বক্স থেকে গাজীপুর ও নরসিংদীগামী বাসও চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে রোজার মধ্যে ইফতারের আগে ঘরমুখো মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হয়।
ঢাকা ট্রেড সেন্টারের ব্যবসায়ী সোহেল রানা বলেন, “মার্কেট কমিটির লোকজন ফুটপাতের দোকানদারদের চলে যেতে বলে। কিন্তু তারা না গিয়ে কমিটির লোকদের মারধর শুরু করে। তখন ব্যবসায়ীরা জোট বেঁধে হকারদের উপর চড়াও হয়।”
রোজায় গুলিস্তান এলাকার যানজট পরিস্থিতি দেখতে গিয়ে তিনি বলেন, ধীরে ধীরে ফুটপাত থেকেও হকার তুলে দেওয়া হবে। ঢাকার পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াকে সঙ্গে নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে গুলিস্তান এলাকা পরিদর্শনে যান মেয়র খোকন।
এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “হকারদের কারণে গুলিস্তান এলাকায় মানুষের দীর্ঘদিন ধরে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। আমরা এটা খালি করেছি। হকারদের আর বসতে দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে তাদেরকে পুনর্বাসনের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।”
হকার যেন আর রাস্তায় বসতে না পারে সেজন্য গোলাপশাহ মাজার থেকে পাতাল মার্কেট পর্যন্ত সড়কে গাড়ি চলাচলের প্রবাহ বাড়াতে হবে বলে জানান ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ।
তিনি বলেন, “এখানে গাড়ি না চললে হকাররা তো বসবেই। তাই গাড়ির প্রবাহ বাড়ানোর ব্যবস্থা করা দরকার।”
কিছু পুলিশ সদস্যের কারণে হকাররা বসার সুযোগ পায়, সাংবাদিকদের এমন অভিযোগের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, সব পেশায় কিছু কিছু খারাপ লোক থাকে। তাদের দায়িত্ব পুরো পুলিশ বিভাগ নেবে না।
রমজানে যানজট বিষয়ে তিনি বলেন, “ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গায় রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি হচ্ছে। বৃষ্টিপাতের কারণে রাস্তা ভেঙে গেছে। ইফতারের আগে সবাই একসাথে বাসায় ফিরতে চাচ্ছে। এসব কারণে কিছু যানজট হয়।
“আমরা হয় তো সুপারসনিক গতিতে যানজট ঠিক করে দিতে পারব না। কিন্তু অল্প গতিতে হলেও রাস্তায় গাড়ি চলতে পারবে। আমরা চেষ্টা করছি।”

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here