রহমান শেলীর দুটি কবিতা

0
144

মিসিং ট্রেন

তুমি বলো, তাই আজো হেঁটে যাই
সময়গুলো বেঁধে সময়গুলো ফেলে।
কতো সময় এলো, কতো সময় গেলো
কতো পাগল এলো, কতো পাগলের মেলা হলো জীবনের হাটে।

তুমিও বলেছিলে; আজো একা?
আছিস কেমনে বল্ প্রেম ছাড়া?
বলি আছি, বিকেলের পর বিকেল
সময় একটা মিসিং ট্রেন!

মিসিং ট্রেন ফেরত কি আসে আর
স্টেশনে?
তোমার সময়গুলো ভাসে
তোমার কথাগুলো ভাসে
তোমার অবহেলাগুলোৃ
তোমার ছোঁয়া ফেরত আসা খাম
নেড়ে যায় লুকানো এই মন।

এখনও কেমন করে যেন বলো
এখনও কেমন করে যেন আছো
পথে পথে হেঁটে হেঁটে ধুলো বেলায়।
ভালোবাসিৃ ভালোবাসা।
এখনও সবাই বললে হয় না বাসা
তুমি বললেই হয়।

অনেক সময়তো গেলো
অনেক গল্পতো জমিয়েছ
কখনও কি বলেছ, থামিয়ে মিসিং ট্রেন, কেমন
ফেরা

আছো কি তুমি?
বেণী ছেড়ে চুল উড়িয়ে সকালে রোদ্দুরে
নরম মাটি হেঁটে সদ্যগজা ঘাসবনে
তোমারই চিহ্নে, পায়ের ধুলিকণায়।
দেখেছো কি দক্ষিণার বটগাছটি
একাকি বসে শিকড়ের পর শিকড় ছড়িয়ে পাখিদের মেলা করে, আজো?

জানি কতো দিন হাঁটো না।
কতোদিন হারিয়ে যেতে চাও, পারো না।
কতোদিন বলেছ, ধুত্তরি ছাই ঘর!
জানি একটা বড় নিঃশাস নিতে চাও,
অনের দূর মেঘের পর।
জানি মনের ঘরে এই অবেলায়,
তুৃমি এসেছ, ফিরেছ আবার আহত ঘরে!

আসি আমিও, পথের ওপাড়ে যাই!
দেখি পথই অপেক্ষায়..!
কোথায় যে যাই? কেন যে যাই?
কোন পথে যাওয়া হলে যাওয়া হয়?
কোন পথে তোমার স্বপ্ন ভাসেৃ
কোন পথে তোমার ইচ্ছেগুলো সুতোয় বাঁধা?
কার জন্য পথ হাঁটলে পথ হাঁটা হয়?
কতোবার ফিরলে ফেরা হয়!

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here