‘ভেবেছিলাম আমাকে নির্যাতন করা হবে’

0
130

বিনোদন ডেস্ক : সম্প্রতি প্যারিসে ডাকাতের কবলে পড়েছিলেন মার্কিন টিভি তারকা কিম কার্দাশিয়ান। এ সময় অস্ত্রের মুখে তার বহুমূল্যের অলঙ্কার ছিনিয়ে নেয় সন্ত্রাসীরা। তবে কিমকে শারিরীকভাবে কোনো আঘাত করেনি তারা। এবারে ভয়াবহ এ অভিজ্ঞতার ব্যাপারে মুখ খুলেছেন তিনি।মার্কিন সংবাদমাধ্যম টিএমজি জানায়, পুলিশের কাছে ঘটনার বিবরণ দেয়ার সময় কার্দাশিয়ান জানান, সন্ত্রাসীরা হাত-পা বেঁধে তাকে বাথটাবে ফেলে রাখে। তবে এ সময় তাকে শারীরিকভাবে কোনো আঘাত করা হয় নি।পুলিশকে এ তারকা বলেন, “ডাকাতেরা একে অপরের সাথে ফরাসিতে কথা বলছিলো। তারা সম্ভবত ইংরেজী জানে না। আমাকে বার বার আমার আংটি কোথায় আছে সেটি জিজ্ঞেস করছিলো তারা। আমাকে যখন টেপ দিয়ে বাঁধা হচ্ছিলো তখন আমি ভেবেছিলাম আমাকে ধর্ষণ করা হবে। কিন্তু তারা আমাকে শারীরিকভাবে কোনো আঘাত করেনি।”কিম আরও জানান, ঘটনার সময় তিনি যখন চিৎকার করছিলেন এবং তাকে ছেড়ে দিতে বলছিলেন তখন তার মুখ টেপ দিয়ে বন্ধ করে দেয় ডাকাতরা। পুরো ঘটনাটি ঘটতে মাত্র ছয় মিনিট সময় লেগেছে।ডাকাতির সময় অ্যাপার্টেমেন্টে ছিলেন কিমের মা, বোন ও সন্তানেরা। এসময় পাশের ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন কিমের বন্ধু সিমোন। চিৎকার শুনে তিনি কিমের দেহরক্ষী প্যাসকেল ও বোন কোর্টনি কার্দাশিয়ানকে ডেকে আনেন। তবে তারা এসে পৌঁছানোর দুই মিনিট আগেই পালিয়ে যায় ডাকাতদল।
কিমের কাছ থেকে প্রায় ৬ লাখ ইউরো মূল্যের গহনা নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনার পরদিন সকালে সপরিবারে প্যারিস ত্যাগ করেছেন এ তারকা।‘প্যারিস ফ্যাশন উইক’ এ অংশ নিতে চলতি সপ্তাহের শুরুতে ফ্রান্সে গিয়েছিলেন কিম। সেখানে এক বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট ব্লকে মা, বোন এবং সন্তানদের নিয়ে থাকছিলেন তিনি। সোমবার সেই অ্যাপার্টমেন্টের বাথরুমে তাকে বেঁধে রেখে সন্ত্রাসীরা ওই লুটের ঘটনা চালায়।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here