ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপিত

0
996

নিজস্ব প্রতিবেদক : যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে রোববার রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসব শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপিত হয়েছে।
শ্রী কৃষ্ণের শুভ জন্মাদিন উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নাম কীর্ত্তণ, প্রার্থনা এবং আলোচনা সভার পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথী শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপন করে।
যশোরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে সনাতন হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত হয়েছে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ যশোর জেলা শাখা সাড়ম্বরে উৎসবটি পালনের লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল-আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক পরিবেশনা, মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বালন, মঙ্গল শোভাযাত্রা, গীতাপাঠ, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, জাগরণী প্রার্থনা, রক্তদান কর্মসূচী, সঙ্গীতানুষ্ঠান ও প্রসাদ বিতরণ করা হয়।
জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে শেরপুরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শেরপুর জেলা শাখার উদ্যোগে এ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
বরগুনায় বিভিন্ন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, আরতি কীর্তন, ভজন কীর্তন। দিনটি পালন উপলক্ষে সকাল ১১টায় জেলা পূজাঁ উদযাপন পরিষদ আখড়াবাড়ীতে আলোচনা সভা শেষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করে।
নড়াইল জেলায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত হয়েছে। নড়াইল শ্রী শ্রী রাম কৃষ্ণ আশ্রমের আয়োজনে এ উপলক্ষে গীতাপাঠ, পূজা, আলোচনা সভা ও প্রসাদ বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বরিশাল মহানগরীতে এ উপলক্ষে কালীবাড়ি রোডের ধর্ম রক্ষিণীতে আলোচনা সভা শেষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়।
গাইবান্ধা জেলার ৭ উপজেলায় কীর্তন, জজ্ঞ, গীতাপাঠ, রামায়ন গান ও পূজা অর্চনার মধ্য দিয়ে শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন উদযাপন করে সনাতন ধর্মালম্বীরা।
ফরিদপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে জেলার সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বীরা ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মদিন পালন করে।
গোপালগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে ও সার্বজনীন কেন্দ্রীয় কালীবাড়ীর সহযোগিতায় শহরের সার্বজনীন কেন্দ্রীয় কালীবাড়ী অঙ্গন থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।
এর আগে সার্বজনীন কেন্দ্রীয় কালীবাড়ী অঙ্গনে এক ধর্মীয় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
দিনাজপুর শহরে জন্মাষ্টমী উদযাপন কমিটির আয়োজনে এক বিশাল র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীতে হিন্দু ধর্মাবলম্বী ভক্তরাসহ প্রশাসনের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক, সামাজিক ব্যক্তিবর্গ অংশ গ্রহণ করেন।
ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গন থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়। মিছিলটি শহর প্রদক্ষিণ শেষে কবি জসিম উদ্দিন হলে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
রাজশাহীতে গীতাযজ্ঞ, কীর্তন, আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য র‌্যালীর মধ্য দিয়ে শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন উদযাপিত হয়। খুলনা মহানগরীসহ জেলায় শ্রী কৃষ্ণের জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন ও র‌্যালী বের করা হয়।
এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জ, নেত্রকোনা শরীয়তপুর, মৌলভীবাজার, বান্দরবান, কুমিল্লা, বগুড়া, দিনাজপুর, রংপুর, কুড়িগ্রাম, নরসিংদী, ঠাকুরগাঁও, জয়পুরহাট, পঞ্চগড়, সিরাজগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর, নীলফামারী, হবিগঞ্জ, মাগুরা, কুড়িগ্রাম, খাগড়াছড়িসহ দেশের সকল স্থানে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপিত হয়েছে।
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি জোরদার করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির : রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ জাতীয় অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো জোরদার করার জন্য সকল ধর্মের মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। বাংলাদেশের সকল ধর্মের মানুষ স্মরণাতীত কাল থেকে পারস্পরিক সম্প্রীতি, আন্তরিকতা ও ঐক্য সমুন্নত রেখে তাদের নিজ নিজ ধর্ম পালন করছেন। তিনি বঙ্গভবনে এক সংবর্ধনায় বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন।
রাষ্ট্রপতি ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বঙ্গভবনে হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য এ সংবর্ধনার আয়োজন করেন। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান সংবর্ধনায় উপস্থিত ছিলেন।
হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ ও ব্যক্তিত্ব এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন পেশার লোকজন সংবর্ধনায় যোগদান করেন।
বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার ও নেপালের রাষ্ট্রদূত সংবর্ধনায় উপস্থিত ছিলেন।
রাষ্ট্রপতি ও তার পতœী রাশিদা খানম বঙ্গভবনে অতিথিদের স্বাগত জানান এবং তাদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here