জয়পুরহাটে ৭২ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ

0
162

জয়পুরহাট প্রতিনিধি : খাদ্যে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চলতি ২০১৬-২০১৭ রবি ফসল উৎপাদন মৌসুমে বোরো চাষে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। রোপা আমন ও আলুর বাম্পার ফলনের পর জেলার কৃষকরা এখন বোরোর চারা রোপন করছেন কৃষি বিভাগের সার্বিক তত্ত্বাবধানে। স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, জেলায় এবার ৭২ হাজার ৩শ ১৩ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে চাল উৎপাদনের টার্গেট ধরা হয়েছে প্রায় ৩ লাখ মে.টন। গত ২০১৫-২০১৬ মৌসুমে জেলায় ৭২ হাজার ৩১০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ হয়েছিল এবং এতে উৎপাদন হয়েছিল ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৩০৭ মে. টন চাল। যা জেলার খাদ্য চাহিদা মিটিয়ে দেশের অন্যান্য স্থানে সরবরাহ করা সম্ভব হয়েছে। হেক্টর প্রতি গড় উৎপাদন হয়েছিল ৪ দশমিক ৭৭ মে.টন চাল।
কৃষি বিভাগ জানান, ধার্য্যকৃত ৭২ হাজার ৩শ ১৩ হেক্টরের মধ্যে রয়েছে উচ্চ ফলনশীল জাতের ৪৯ হাজার ২৬৯ হেক্টর ও হাইব্রিড জাতের ২৩ হাজার ৪৪ হেক্টর। উপজেলা ভিত্তিক লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে সদর উপজেলায় উচ্চ ফলনশীল (উফশী) জাতের ১৫ হাজার ১৫০শ হেক্টর ও হাইব্রিড জাতের ২ হাজার ৩শ হেক্টর, পাঁচবিবিতে উফশী ১৭ হাজার ৪৭০ হেক্টর, হাইব্রিড ২ হাজার ৮শ হেক্টর, আক্কেলপুরে উফশী ৮ হাজার ৬০ হেক্টর, হাইব্রিড ২ হাজার ৩শ হেক্টর, ক্ষেতলালে উফশী ৪ হাজার ৯৮০হেক্টর, হাইব্রিড ৬ হাজার হেক্টর এবং কালাই উপজেলায় উফশী জাতের ৩ হাজার ৬০৯ হেক্টর এবং হাইব্রিড জাতের ৯ হাজার ৬৪৪ হেক্টর জমিতে। বোরো চাষ সফল করতে উফসী জাতের ৩ হাজার ২৮৪ হেক্টর ও হাইব্রিড জাতের ১ হাজার ৫৩৬ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে জেলায় বোরো’র ১২ ভাগ চারা রোপন সম্পন্ন হয়েছে।
জেলায় বোরো চাষ সফল করতে স্থানীয় কৃষি বিভাগ ইতোমধ্যে ফেব্রুয়ারি মাসের সারের বরাদ্দ পেয়েছে । যার মধ্যে রয়েছে ইউরিয়া ৫ হাজার ২১৩ মে. টন, টিএসপি ১ হাজার ৩১৩ মে. টন, এমওপি ১ হাজার ৫শ ৮৩ মে. টন ও ডিএপি ১ হাজার ২ শ ৪৬ মে. টন। বোরো চাষে সেচ সুবিধা প্রদানের জন্য ১ হাজার ৮৯৫ টি গভীর ও ৯ হাজার ৮৫৪টি অগভীর নলকূপ প্রস্তুত করা হয়েছে।
বিএডিসি (বীজ) কৃষকদের মাঝে উন্নত জাতের বীজ সরবরাহের ব্যবস্থা করেছে। উচ্চ ফলনশীল জাতের মধ্যে রয়েছে বিআর-২৮, ২৯, ১৬ ও ৫৪ জাতের ধান, এ ছাড়াও রয়েছে জিরাশাইল, মিনিকেট। হাইব্রিড জাতের মধ্যে রয়েছে এসিআই- ১, ২, ৩, ৪, ৫, ধানীগোল্ড, হিরা-২, ৫, জাগরন, ময়না, টিয়া, ধানী, এসএল-৮, তেজ।
স্থানীয় ব্যাংক বিশেষ করে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক বোরো সহ অন্যান্য শীতকালীন ফসল চাষের কৃষকের মাঝে কৃষি ঋণ বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে সূত্রটি  জানান।
জেলায় বোরো চাষ সফল করতে কৃষক মাঠ স্কুলের মাধ্যমে কৃষকদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও উপকরণ সরবরাহ করা হচ্ছে বলে কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক সুধেন্দ্রনাথ রায় বাসস’কে জানিয়েছেন।

Share on Facebook

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here