শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার পক্ষ থেকে ২২৭৪ জন শিক্ষার্থী পেল সংবর্ধনা, স্কুল ড্রেস ও মিড ডে মিল বক্স

0
167

মোঃ মামুন চৌধুরী,হবিগঞ্জ: মঙ্গলবার সকাল ৯ টা বাজতেই দলে দলে জেলার শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা কার্যালয় মাঠে এসে স্কুল শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হতে থাকেন। উপলক্ষ শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে ‘কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠান।
নির্ধারিত সময় ১১ টায় এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। পুরো মাঠ উপস্থিতিদের আগমনে মুখরিত।  চলে দুপুর পর্যন্ত। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করা হয়।  গীতা পাঠের পর জাতীয় সঙ্গীতের পরই আলোচনা সভা। পৌর মেয়র মোঃ ছালেক মিয়ার সভাপতিত্বে ও বাবুল মল্লিকের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম। বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদ সচিব দূর-রে-শাহওয়াজ, নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, মোঃ আব্দুল মুকিত, আলেয়া বেগম, রেলওয়ে কলোনী স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেরা ছালেক, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অনিল কৃষ্ণ মজুমদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম আজহারুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক  শিক্ষা কর্মকর্তা জিয়া উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগ উপদেষ্টা শেখ মুজিবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদার।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন পৌর প্যানেল মেয়র মাসুদউজ্জামান মাসুক। বক্তব্য রাখেন, শায়েস্তাগঞ্জ মডেল কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম, সাবেক পৌর কাউন্সিলর আসম আফজল আলী, প্রেসক্লাব সভাপতি মোঃ আব্দুর রকিব, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান আল রিয়াদ, প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ নুরুল হক, আবিদুর রহমান, হারুনুর রশিদ তালুকদার, পৌর কাউন্সিলর জিতু আহমেদ মাখন, মহিলা কাউন্সিলর তহুরা খাতুন লাইজু, আছমা আব্দুল্লাহ, পৌর সচিব মাহবুবুর রহমান পাটোয়ারী, নির্বাহী প্রকৌশলী  সিরাজুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী কাজী আবু ওবায়েদ প্রমুখ।
আলোচনা শেষে পৌর এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পিএসসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেষ্ট উপহার দিয়ে সংবর্ধনা ও ৩য় থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে মিড ডে মিল বক্স এবং দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ড্রেস বিতরণ করা হয়।
এতে মোট ২২৭৪ জন শিক্ষার্থী পায় সংবর্ধনা, স্কুল ড্রেস ও মিড ডে মিল বক্স। এসব উপহার পেয়ে শিক্ষার্থীরা আনন্দে আত্মহারা। শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করায় পৌর কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন অভিভাবকসহ পৌর নাগরিকরা।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম বলেন, এ আয়োজন শিক্ষার্থীদের মনে অনুপ্রেরণা জোগাবে। শিক্ষার্থীদের নিয়মিত স্কুলে গিয়ে মনযোগ দিয়ে ক্লাস করতে হবে। তাহলে আরও ভাল রেজাল্ট আসবে। তিনি শিক্ষার্থীদের প্রতি সু-শিক্ষা গ্রহণ করে মানব সেবায় এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন।
সভাপতির বক্তব্যে পৌর মেয়র মোঃ ছালেক মিয়া বলেন, সরকার বিনামূল্যে বই দিচ্ছে। বেতন মওকুফ করছে। বরাদ্দ দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, পৌর এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠাগার গড়ে তোলা হবে। টাকার অভাবে কাউকে লেখাপড়া ছাড়তে হবে না। আমি তাদের দায়িত্ব নেব। তবে চাই ভাল রেজাল্ট।

Share on Facebook