admoc
Kal lo

,

admoc
Notice :

রোহিঙ্গা হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন

Untitled-2

কালবেলা ডেস্ক: মাদারীপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এক ঘন্টা বন্ধ রেখে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত। রোহিঙ্গা মুসলিম গনহত্যা বন্ধের দাবীতে নেত্রকোনায় নাগরিক সমাজের মানববন্ধন। হত্যাকান্ডের বিচার, পৈত্রিক সম্পত্তি ফেরতসহ ৭ দফা দাবি আদায়ে গাইবান্ধায় পুলিশী বাধার মুখে গোবিন্দগঞ্জের সাঁওতালদের বিক্ষোভ মিছিল অবস্থান ও স্মারকলিপি প্রদান। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য-
গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় পুলিশি বাধার মুখে বুধবার দুপুরে গোবিন্দগঞ্জের আদিবাসি সাঁওতালরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অবস্থান ও স্মারকলিপি প্রদান এবং বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচী পালন করে। পৈত্রিক সম্পত্তি ফেরৎ দেয়াসহ সাতদফা দাবীতে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালিত হয়। সাহেবগঞ্জ বাগদা ফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটি, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ, বাংলাদেশ আদিবাসী ইউনিয়ন, জন উদ্যোগ ও গাইবান্ধা আদিবাসী বাঙ্গালী সংহতি পরিষদের যৌথ উদ্যোগে এ কর্মসূচী পালন করে।
গাইবান্ধা শহরের সিপিবি কার্যালয় থেকে মিছিল নিয়ে সাঁওতালরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ঢোকার চেষ্টা করে। পুলিশের বাঁধার মুখে তারা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের গেটের সামনে অবস্থান নেয়। অবস্থান চলাকালে সিপিবি জেলা শাখার সভাপতি মিহির ঘোষ, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন সরেন, অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাবু, প্রবীর চক্রবর্তী বক্তব্য দেন। পরে জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পালের হাতে দাবী দাওয়া সম্বলিত একটি স্মারকলিপি হস্তান্তর করেন তারা। এসময় জেলা প্রশাসক তাদের দাবী দাওয়া গুলো উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার আশ্বাস দেন।
জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি রবীন সরেন বলেন, পাকিস্তান আমলে আদিবাসী ও বাঙ্গালীদের কাছ থেকে তৎকালীন সরকার রংপুর চিনিকলের জন্য আখ চাষের শর্তে ১৮৪২ একর জমি অধিগ্রহণ করে। অধিগ্রহণের শর্ত ভঙ্গ হওয়ায় সাওতাল ও বাঙ্গালীদের জমি ফেরৎ না দেয়ায় গত ৬ নভেম্বর গোবিন্দগঞ্জে রংপুর চিনিকলের বাগদা ফার্মে বাপ দাদার পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসতি গড়ে তোলে সাওতালরা। সেখানে সাওতালদের ঝুপড়ি ঘর জ্বালিয়ে দেয় পুলিশ। এসময় পুলিশ গুলি চালিয়ে সাওতালদের হত্যা করা। তারা সাওতালদের বসতি উচ্ছেদের প্রতিবাদ জানান এবং ঘটনার সাথে জড়িত প্রভাবশালীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবী করেন। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় বাঙ্গালীদের পাশাপাশি এই সাওতালরাও সেদিন পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল। সেই সাওতালরা আজ ভালো নেই।
সিপিবি জেলা শাখার সভাপতি মিহির ঘোষ সাঁওতালদের সাতদফা দাবী বাস্তবায়নে সরকারের প্রতি জোর দাবী জানিয়ে অভিযোগ করেন, ডিসি অফিসে স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচীতে যোগ দেয়ার জন্য গোবিন্দগঞ্জ থেকে গাইবান্ধায় আসার সময় পথে পথে সাওতালদের পুলিশি বাধার মুখে পড়তে হয়। তিনি সাওতালদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মামলা প্রত্যাহারের আহবান জানান।
গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বাঁধা দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, শান্তিপূর্ণ কোন কর্মসূচীতে পুলিশ কখনোই বাধা দিতে পারে না। জননিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ সব সময় দায়িত্ব পালন করে। কর্মসূচী পালনের নামে কেউ যাতে কোন বিশৃংখলা সৃষ্টি করতে না পারে পুলিশ সব সময় সেদিকে খেয়াল রাখে।
নেত্রকোনা: মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিম গনহত্যা বন্ধের দাবীতে গতকাল বুধবার নেত্রকোনায় মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। নেত্রকোনা সচেতন নাগরিক সমাজ এই মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করে। পৌরসভার মোড়ে সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন কর্মসূচীতে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন অংশ গ্রহন করেন। মানববন্ধন চলাকালে অবিলম্বে মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধের দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, নেত্রকোনা রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতির সভাপতি ননী গোপাল সরকার, শিকড় উন্নয়ন কর্মসূচীর সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান খোকন, সাংবাদিক এ কে এম আব্দুল্লাহ, ভজন দাস, লিটন ধর গুপ্ত, আনিছুর রহমান, সচেতন নাগরিক সমাজের সভাপতি দেব শংকর সাহা রায় দেবু, প্রকৃতি বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি তানভীর জাহান চৌধুরী, নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরান, নেত্রকোনা নিউজ ২৪ ডট কমের সম্পাদক সারোয়ার আলম এলিন প্রমূখ।
মাদারীপুর: মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমান হত্যার প্রতিবাদে বুধবার সকাল ১১টা থেকে ১২ পর্যন্ত এক ঘন্টা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে মানববন্ধন করেছে মাদারীপুর বণিক সমিতি।
এ সময় বক্তরা দাবী করেন, অবলিম্বে রোহিঙ্গা হত্যা বন্ধ না হলে বৃহৎ কর্মসূচি দেয়া হবে।
মানববন্ধন শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তরা বলেন, সম্প্রতি সময়ে মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলামানদের উপর যে বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞ চালানো হচ্ছে, এতে মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে।
তারা অবিলম্বে মায়ানমার সরকার ও জাতিসংঘের প্রতি এই হত্যা বন্ধের আহবান জানান। যদি তারা হত্যা বন্ধ করতে ব্যর্থ হয়, তাহলে বৃহৎ আন্দোলনেরও হুমকি দেয়া হয় মানববন্ধন থেকে।
এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চন্দিবর্দ্দির পীর মাওলানা আলী আহম্মেদ, বণিক সমিতির সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম বেপারী, সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম তুষার ভূইয়া প্রমুখ।
এ সময় বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, মাদ্রাসার ছাত্রসহ বিভিন্ন অঙ্গণের ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন। মাববন্ধন চলাকালীন এক ঘন্টা বণিক সমিতির সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়।
পরে মানববন্ধন শেষে রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য বিশেষ মোনাজাত ও ত্রাণ সংগ্রহের ঘোষণা দিয়ে কর্মসূচি শেষ হয়।

Share Button
Share on Facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী