admoc
Kal lo

,

admoc
Notice :
«» রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার কার্যকর কিছুই করছে না: প্রধানমন্ত্রী «» উত্তর কোরিয়ায় সিআইএ প্রধান: কিম জং আনের সঙ্গে গোপন বৈঠক «» ঢাকার রাস্তায় পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের দাপটে যাত্রীরা অসহায় «» ইন্টারনেট আবিষ্কার হয়েছে মহাভারতের যুগে: ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী «» জিডিপিতে শিল্পখাতের অবদান ৪০ শতাংশে উন্নীত করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে : শিল্পমন্ত্রী «» বিপিও সেক্টরে ১ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে : জয় «» সৌদি আরবে প্রথমবারের মতো নারীদের সাইক্লিং প্রতিযোগিতা «» বিএনপি দেশের স্থিতিশীল অবস্থা মেনে নিতে পারছে না : ওবায়দুল কাদের «» মিয়ানমার প্রথমে ফিরিয়ে নিল ৫ জন «» যৌন নির্যাতন ছিল রোহিঙ্গা বিতাড়নের হাতিয়ার

গাইবান্ধায় দুর্যোগ পূর্ব প্রস্তুতি ও করণীয় শীর্ষক ডায়ালগ

Untitled-8

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: দুর্যোগ পূর্ব প্রস্তুতি ও করণীয় শীর্ষক এক ডায়ালগ বুধবার গাইবান্ধা জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এসকেএস এলনা প্রকল্প ও অক্সফ্যাম বাংলাদেশের সহযোগিতায় গাইবান্ধার ছিন্নমুল মহিলা সমিতি এই ডায়ালগের আয়োজন করে। জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল এই ডায়ালগের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহাবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও জেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ইদ্রিস আলীর উপস্থাপনায় এই ডায়ালগে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,সিভিল সার্জন ডাঃ মো. আব্দুস শাকুর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্যাহ ফারুক, পৌর প্যানেল মেয়র জিএম চৌধুরী মিঠু, কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক আ.কা.মো. রুহুল আমিন, জেলা পশু সম্পদ কর্মকর্তা, গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, সাংবাদিক সরকার মো. শহিদুজ্জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা তথ্য কর্মকর্তা শফিকুর রহমান, ছিন্নমুল মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক মুর্শিদুর রহমান খান, ছিন্নমুল মহিলা সমিতির প্রকল্প কর্মকর্তা এবিএম মাসুদুন্নবী রিপন, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মকর্তা আব্দুস সালাম প্রমুখ।
ডায়ালগে বক্তারা দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস কল্পে গৃহীত পদক্ষেপ বাস্তবায়নে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ ও তার প্রতিকার নিয়ে আলোচনা করেন। তদুপরি এই ডায়ালগে কি কি ধরণের কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে দুর্যোগের ঝুঁকি হ্রাস করে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সহনীয় পর্যায়ে রাখা যায় এবং দ্রুত সাড়াদানসহ ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও মতবিনিময় করা হয়। ডায়ালগে একটি তথ্যে চিত্রে উল্লেখ করা হয়, ২০১৭ সালে গাইবান্ধা জেলার ৬৯টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার বন্যা ও নদী ভাঙ্গনে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৬শ’ ৬৩টি পরিবারের ৫ লাখ ৭২ হাজার ৭৩১ জন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফসল নিমজ্জিত হয় ২৭ হাজার ১শ’ ৬৭ হেক্টর জমির।

Share Button
Share on Facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী